বাংলার আকাশে শতাব্দীর উজ্জ্বলতম ধূমকেতু আইসন

স্টাফ রিপোর্টার: অবশেষে বাংলার আকাশে দেখা দিলো শতাব্দীর উজ্জ্বলতম ধূমকেতু আইসন। আকাশমোদী মানুষের জন্য তো বটেই, এমনকি যারা এ পর্যন্ত স্বচক্ষে ধূমকেতু দেখেননি তাদের জন্যও এ এক রোমাঞ্চকর সংবাদ। ২০১২ সালের ২১ সেপ্টেম্বর ধূমকেতুটি রুশ দেশে একটি ছোট প্রতিফলক দুরবিন দিয়ে আবিষ্কার করেন ভিতালি নোভস্কি ও আর্তিয়েম নভোচিনক। তারা ইন্টারন্যাশনাল সাইন্টিফিক অপটিক্যাল নেটওয়ার্কের (আইএসওএন) মাধ্যমে এ এটি আবিষ্কার করেছিলেন বলে ধূমকেতুটির নাম হয়েছে আইসন। ধূমকেতুটি ইতোমধ্যে বিভিন্ন দেশ থেকে দেখা গেছে। তবে বাংলাদেশ থেকে প্রথমবারের মতো আলোচিত এ ধূমেকতুটি সনাক্তকরণ ও ছবি তুলতে সক্ষম হয়েছে অনুসন্ধিত্সু চক্রের জ্যোতির্বিজ্ঞান বিভাগ। ৩ নভেম্বর রোববার ভোর ৫টায় মুন্সিগঞ্জ জেলার লৌহজং থানার শিমুলিয়া গ্রামে (অক্ষাংশ ৯০ডিগ্রী ১৮মি.পূর্ব ও দ্রাঘিমাংশ ২৩ ডিগ্রী ২৮মি.উত্তর বা কর্কটক্রান্তিরেখা) চক্র আয়োজিত আকাশ পর্যবেক্ষণ ক্যাম্প থেকে আইসন ধূমকেতু শনাক্ত করা হয় ও ক্যামেরা দিয়ে ছবি তোলা হয়। দ্বিতীয় পর্যায়ে গত বৃহস্পতিবার রাতে চক্রের পর্যবেক্ষণ দলের কর্মীরা মুন্সিগঞ্জ জেলার লৌহজং থানার খইরা গ্রামে পরবর্তী ধূমকেতু পর্যবেক্ষণ ক্যাম্পের আয়োজন করে। এ ক্যাম্প থেকে অনুসন্ধিত্সু চক্রের ৮ ইঞ্চি মিড ক্যাসিগ্রেইন টেলিস্কোপ ও ক্যানন ইওএফ ফাইভ ডি ক্যামেরা দিয়ে আইসন ধূমকেতুর ছবি তুলতে সক্ষম হন তারা। ছবির এক্সপোজার সময় ছিলো ৩ মিনিট। রোববার সকালে সংশ্লিষ্টরা নিশ্চিত করেন যে বাংলাদেশ থেকে তোলা ছবির ধূমকেতুটিই ধূমকেতু আইসন। আইসন ধূমকেতু বিষয়ক যেকোন তথ্য জানার জন্য যোগাযোগ করা যাবে-০১৬৮০০৮১৯৫৪ ও ০১৭১২৯৬৫৩৯৯ নম্বরে অথবা achokro@gmail.com ইমেইলে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *