বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে চুয়াডাঙ্গায় জেলা ছাত্রলীগের মানববন্ধন ও স্মারকলিপি পেশবঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে ছাত্রলীগের মানববন্ধন ও স্মারকলিপি পেশ

 

স্টাফ রিপোর্টার: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যাকারীদের বিদেশ থেকে ফিরিয়ে এনে ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন করেছে চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর ও ঝিনাইদহ জেলা ছাত্রলীগ।   চুয়াডাঙ্গায় গতকাল রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শহরের শহীদ হাসান চত্বরে ওই মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। ঘণ্টাব্যাপি মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জানিফ। যুগ্মসাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন জ্যাকির পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন- চুয়াডাঙ্গা পৌর ছাত্রলীগের সহসভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাফিজুর রহমান মাফি, দফতর সম্পাদক শেখ সামী তাপু, চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য গাজী এমদাদুল হক সজল, সদর থানা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইমরান আহমেদ। এছাড়াও আরও উপস্থিত ছিলেন- চুয়াডাঙ্গা জেলা যুবলীগ নেতা ইমরান শেখ, চুয়াডাঙ্গা সদর থানা ছাত্রলীগের উপ তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক রকিবুল ইসলাম রকিব, সদর থানা ছাত্রলীগ নেতা কামরান, তাজ, মারুফসহ পৌর ছাত্রলীগের দুর্যোগ ও ত্রাণ ব্যবস্থা বিষয়ক সম্পাদক সেলিম রেজা পিন্টু, পৌর ছাত্রলীগ নেতা আসিফ খান প্লাবন, হাফিজ, ইমন, রাজন, মিশন, রবিন, সাগর, ৫ নং ওয়ার্ড  ছাত্রলীগ সভাপতি মারুফ ও সাধারণ সম্পাদক সাব্বির আহমেদ রাকিব, চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা তানবীন সোহাগ, ইসমাইল খলিলুল্লাহ, নিপ্পন, কানন, তুষার, ইসতিয়াক সিথুন, রিয়াজ, আরাফাত প্লাবন, শাওন, ফারহান রাব্বি, আরিফিন সজীব, সানজিদ, মিরাজুল, মাহবুবুল, তালেব, হিমু, নাহিদ, আনিস, আরফিন জুয়েল ও জাহিদ, শোভনসহ চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগের বিভিন্ন ইউনিটের নেতা ও কর্মীবৃন্দগণ। মানববন্ধনে বক্তরা বলেন, বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের স্বঘোষিত বিদেশে পলাতক খুনিদের অবিলম্বে দেশে ফিরিয়ে এনে ফাঁসির রায় কার্যকর করতে হবে এবং দেশের বাইরে থেকে এনে ফাঁসির মঞ্চে দাঁড় করাতে হবে। এ সময় বক্তরা আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারকে হত্যার মধ্যদিয়ে খুনিরা এ দেশের ইতিহাসে এক কালো দাগ লেপন করে গিয়েছে। বাঙালি জাতির জন্য এ আগস্ট মাস একটি কলঙ্কিত মাস। তাই এই কলঙ্ককে মুছার জন্য বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের হত্যাকারীদের দ্রুত দেশে ফিরিয়ে এনে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তি ফাঁসির রায় কার্যকর করতে হবে। পরে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ করেন তারা। এ সময় জেলা প্রশাসকের পক্ষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ আব্দুর রাজ্জাক স্মারকলিপি গ্রহণ করেন।  এক প্রেসবিজ্ঞতিতে জানানো হয়েছে, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের কর্মসূচি অনুযায়ী ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট মহান স্বাধীনতার ঘোষক ও স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যদেরকে একদল বিপদগামী সেনা অফিসার ও কতিপয় ষড়যন্ত্রকারী ঘাতক নির্মমভাবে হত্যা করে। যা স্বাধীন বাংলাদেশে এক কালো অধ্যায় হিসেবে দেশ ও বিদেশে সর্বজন নিন্দিত। এই ঘৃণিত হত্যাকা- মৃত্যুদ-প্রাপ্ত আসামিদের দেশে ফিরিয়ে এনে মৃত্যু দ-াদেশ দ্রুত কার্যকর করার দাবিতে চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগ শহরে বিক্ষোভ মিছিল ও চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের সামনে মানববন্ধন শেষে পরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্মারকলিপি পেশ করা হয়। উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোহাইমেন হাসান জোয়ার্দ্দার অনিক, সিনিয়র সহসভাপতি শাহাবুল হোসেন, সাবেক সহসভাপতি রুবায়েত বিন আজাদ সুস্থির, ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক ফিরোজ আলী জোয়ার্দ্দার, অর্থবিষয়ক সম্পাদক রিমন, সহসম্পাদক ইমরান, বাপ্পী, বেজীও, সাবেক প্রচার সম্পাদক আব্দুর রহমান, সাবেক যুগ্মসাধারণ সম্পাদক শফি উদ্দিন টিটু, সাবেক স্কুল ও ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক রাজু আহমেদ, সাবেক তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক জ্যামি ও সাবেক সদস্য খালিদ মাহমুদ। চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আশিক ইকবাল স্বপন, সাবেক গ্রন্থনা ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক মেহেদী হাসান হিমেল, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি জাবিদুল ইসলাম জাবিদ প্রমুখ। উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু ছাত্রপরিষদের জেলা আহ্বায়ক সাইফুল ইসলাম রানা, যুগ্মআহ্বায়ক আ. আলিম, রতন, মানিক, শাওন, ছাত্রলীগ নেতা রাসেল, পিয়াস, বিপুল, আসাদ, মালেক, রোকন, মামুন, সাহেব, জান্নাত, মোমিন, রানা, রিয়ন, মানিক, জীবন, কলেজ ছাত্রলীগ নেতা, জীম, শিমুল, সোহেল, কালাম, বাপ্পী, মিঠুন, আলিফ, ইসরাইল, জুয়েল, আকাশসহ ছাত্রলীগের বিভিন্ন ইউনিটের নেতৃবৃন্দ।আলমডাঙ্গা ব্যুরো জানিয়েছে, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যদের হত্যাকারী পলাতক খুনিদের অবিলম্বে দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করার দাবিতে মানববন্ধন ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বরাবর স্মারকলিপি পেশ করেছে আলমডাঙ্গা উপজেলা, পৌর ও কলেজ ছাত্রলীগ। শোকের মাস আগস্টে মাসব্যাপি কর্মসূচির ধারাবাহিকতায় রবিবার দুপুরে আলমডাঙ্গা হাইরোডের আলতায়েবা মোড়ে আয়োজিত এক মানববন্ধনে পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি নয়ন সরকারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা ছাত্রলীগের উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সালমুন আহমেদ ডন। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আলাল আহমেদ। ছাত্রলীগ নেতা আশরাফুল হকের উপস্থাপনায় বক্তব্য রাখেন পৌর ছাত্রলীগের সম্পাদক নাহিদ হাসান তমাল, উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাইকা, যুগ্ম সম্পাদক তামিম, কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক হাসানুজ্জামান। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ছাত্রলীগ নেতা ইছানুর কবীর, আসাদুজ্জামান রুবেল, হিটু, পাপন, রকি, সজিব, টিটন, কাজল, সৈকত, অভি, দিগন্ত, শরিফ, নাজিম, মামুন, করীম, অটাল, শাহেদ, রানা, রনি, বিল্পব, নাহিদ, সজিব, আশিক, রোহান, হৃদয়, বিপুল, আলীম, শাহিন, নাঈম প্রমুখ।  মানববন্ধন শেষে ছাত্রলীগের উপজেলা পৌর ও কলেজ সভাপতি ও সম্পাদকের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল বঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফিরিয়ে এনে দ- কার্যকর করার দাবি সংবলিত স্মারকলিপি জমা দিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের অফিসে যান। পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পক্ষে এই স্মারকলিপি গ্রহণ করে আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার আজাদ জাহান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার চুয়াডাঙ্গার উপপরিচালক আনজুমান আরা, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হেলাল উদ্দিন, ভাইস চেয়ারম্যান কাজী খালেদুর রহমান অরুন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শামিম আরা।মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পলাতক খুনিদের দেশ ফিরিয়ে আনার দাবিতে মেহেরপুরে মানববন্ধন করেছে জেলা ছাত্রলীগ। গতকাল রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মেহেরপুর সরকারি কলেজের সামনে মেহেরপুর-কুষ্টিয়া সড়কে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি বারিকুল ইসলাম লিজনের নেতৃত্বে মানববন্ধনে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জুয়েল রানা, সহসভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক, যুগ্ম সম্পাদক আশিকুর রহমান আশিক, সাংগঠনিক সম্পাদক জাব্বারুল ইসলাম, সেফিক, দফতর সম্পাদক সাজেদুর রহমান সেতু, মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক নাহিদ, সদর থানা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাজন আলী মালিথা, সহসভাপতি ফাহাদ হোসেন, মেহেরপুর সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি কুদরত-ই খুদা রুবেল, সাধারণ সম্পাদক মাসুদ রানা, মুজিবনগর সরকারি ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ সাদি, ছাত্রলীগ নেতা শোভন সরকার, ফারুক হোসেন, ফয়সাল হোসেন, জয়, সান, মিরাজসহ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীর মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন।গাংনী প্রতিনিধি জানিয়েছেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পলাতক খুনিদের দ্রুত দেশে ফিরিয়ে এনে ফাঁসির রায় কার্যকরের দাবিতে মেহেরপুরের গাংনীতে মানববন্ধন করেছে ছাত্রলীগ। গতকাল রোববার দুপুর ১২টার দিকে গাংনী প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে ছাত্রলীগ নেতাকর্মী ছাড়াও সাধারণ ছাত্রছাত্রীরা অংশগ্রহণ করে। মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন গাংনী উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি তৌহিদুল ইসলাম।  বক্তারা বলেন, দীর্ঘদিন পরে হলেও বঙ্গবন্ধু হত্যার সেই কলঙ্ক জাতি মুছতে সক্ষম হচ্ছে। কিন্তু পলাতক খুনিদের বিচার সম্পন্ন না হওয়ায় পর্যন্ত জাতি ভারমুক্ত হচ্ছে না। তাই খুনিরা যে দেশেই থাকুক না কেন তাদের ফিরিয়ে এনে ফাঁসির রায় কার্যকর করতে হবে। উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক বিপ্লব হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মাহমুদ হাসিব, অথবিষয়ক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি সাইফুল ইসলাম রতন, পৌর ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক ইমরান হাবীব, সাহারবাটি ইউপি ছাত্রলীগ আহ্বায়ক রহিদুল ইসলাম, যুগ্ম আহ্বায়ক রাকিবুল ইসলাম সুজন, শাহীন রেজা, কাথুলী ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি মানিক আহম্মেদ, সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াছ হোসেন, ধানখোলা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ওয়াজ্জেল হোসেন, তেঁতুলবাড়িয়া ইউপি ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান পিন্টু, কাজিপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সভাপতি সুইট আহম্মেদসহ ছাত্রলীগের বিভিন্ন ইউনিট নেতৃবৃন্দ। মানববন্ধনে একাত্মতা প্রকাশ করে অংশগ্রহণ করেন জেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক ওয়াসিম সাজ্জাদ লিখন, আ.লীগ নেতা শহিদুল ইসলাম শাহ ও ইয়াছিন রেজা, উপজেলা ছাত্রলীগ সাবেক আহ্বায়ক ইসমাইল হোসেন ও বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের আহ্বায়ক আমজাদ হোসেন। মানববন্ধন শেষে সংশ্লিষ্ট দফতরের কাছে গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে দাবি সংবলিত স্মারকলিপি প্রেরণ করে ছাত্রলীগ। এর আগে প্রধান সড়কে বিক্ষোভ মিছিল করা হয়।  ঝিনাইদহ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে ফাঁসি কার্যকরের দাবিতে ঝিনাইদহে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে ছাত্রলীগ। রোববার সকালে সরকারি কেসি কলেজ প্রাঙ্গণ থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে তার। মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পায়রা চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। পরে সেখানে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। সে সময় জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শাকিল আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক রানা হামিদসহ ছাত্রলীগের জেলা, উপজেলা ও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নেতাকর্মীরা বক্তব্য রাখেন। বক্তারা অবিলম্বে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে ফাঁসি কার্যকরের দাবি জানান। পরে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরাবর স্মারকলিপি পেশ করে।ইবি প্রতিনিধি জানিয়েছেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পলাতক খুনিদের দেশে ফিরিয়ে এনে শাস্তির দাবিতে মানবন্ধন করেছে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ। গতকাল রোববার বেলা সাড়ে ১১টায় বিশ্ববিদ্যলয়ের প্রশাসন ভবনের সামনে এ মানববন্ধন অুনষ্ঠিত হয়। জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহিনুর রহমান শাহিন ও সাধারণ সম্পাদক জুয়েল রানা হালিমের নেতৃত্বে মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যায়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. সেলিম তোহা। উপস্থিত ছিলেন- ছাত্রলীগ নেতা রবিউল ইসলাম পলাশ, রিজভী আহমেদ পাপন, তৌকির মাহফুজ মাসুদ, আব্দুস সালাম, গোলাম মোস্তফা, ফয়সাল সিদ্দিকী আরাফাত, রেজোয়ানুল ইসলাম, মিথুন হোসেন চৌধুরী, আল আমিনসহ শতাধিক ছাত্রলীগকর্মী।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *