ফলোআপ: দামুড়হুদায় আনন্দ স্কুল নিয়ে লিখিত অভিযোগ : তদন্ত শুরু করেছে এডিসির নেতৃত্বে তদন্ত দল

স্টাফ রিপোর্টার: দামুড়হুদা উপজেলায় আনন্দ স্কুল নিয়ে লিখিত অভিযোগের তদন্ত শুরু হয়েছে। জেলা প্রশাসকের উদ্যোগে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মল্লিক সাঈদ মাহবুবেরর নেতৃত্বে এ তদন্ত শুরু করেছে।

তদন্তকালে অভিযোগকারী শিক্ষকদের বেশিরভাগই গতকাল বুধবার সশরীরে উপস্থিত হয়ে তদন্তদলের সামনে লিখিতভাবে জবাব প্রদান করেছেন। কমিটির অন্য দুজন সদস্য হলেন জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা খোন্দকার আলাউদ্দিন আল আজাদ ও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোক্তার হোসেন সরকার।

ঘটনার বিবরণে জানা গেছে, গত ১০ সেপ্টেম্বর জেলা প্রশাসকের কাছে আনন্দ স্কুলের শিক্ষার্থীদের পোশাক ও শিক্ষা উপকরণ কেনায় অনিয়মের অভিযোগ তুলে ২৫ জন শিক্ষক লিখিত অভিযোগ করেন। এ অভিযোগের প্রেক্ষিতে অভিযোগকারীদেরকে স্বাক্ষ্য প্রদানের জন্য লিখিত নোটিশ করেন। নোটিশের প্রেক্ষিতে কয়েকজন বাদে বেশিরভাগ শিক্ষকই গতকাল উপস্থিত ছিলেন। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে শিক্ষক মোশারফ হোসেন জানান, পোশাকের মান খারাপ বলে তারা নেননি। যা লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। অন্যান্যরাও একই অভিযোগ করেছেন বলে তিনি দাবি করেছেন। কমিটির প্রধান অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মল্লিক সাঈদ মাহবুব জানান, তদন্ত চলমান। তদন্ত শেষ হওয়ার আগে কিছুই বলা যাচ্ছে না।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের মে থেকে আগষ্ট পর্যন্ত আনন্দ স্কুলের শিক্ষার্থীদের জন্য ঘর মেরামত, পোশাক ও উপকরণ বাবদ ৩৭ লাখ ৩৭ হাজার টাকা আসে। এরমধ্যে প্রায় ২১ লাখ টাকার খরচ নিয়ে অনিয়মের অভিযোগ ওঠে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *