প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিশ্বসভায় বাংলাদেশ মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে

দামুড়হুদার হাউলী ইউনিয়নের ভাতাভোগীদের সাথে মতবিনিময়কালে এমপি টগর

দর্শনা অফিস/দামুড়হুদা প্রতিনিধি: ‘ক্ষুধা ও দারিদ্র মুক্ত বাংলাদেশ গড়া, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লক্ষ্য’ এ স্লে¬াগানকে সামনে রেখে দেশে অব্যাহত রয়েছে উন্নয়নমূলক কার্যক্রম। সে সাথে ভিক্ষুকমুক্ত দেশ গঠনে নিরলসভাবে কাজ করছে শেখ হাসিনা সরকার। গরীব-দুঃখী, দুস্থ ও ভিখারিদের তালিকা তৈরি করে তাদের পুনর্বাসন করা হয়েছে। প্রদান করা হয়েছে অর্থসহ নানা উপকরণ। দামুড়হুদার হাউলী ইউনিয়ন এলাকায় প্রায় ২ হাজার ৫শ জনকে বিভিন্নভাবে সহযোগিতার মাধ্যমে সরকার পাশে দাড়িয়েছে। দারিদ্র দূরিকরণে সরকারের কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। গতকাল বুধবার সকাল ১০টার দিকে হাউলী ইউনিয়নের লোকনাথপুর ক্যাডেট মাদরাসা সংলগ্ন চত্বরে মুক্তমঞ্চে অনুষ্ঠিত ইউনিয়নের সকল ভাতাভোগীর সাথে মতবিনিময়সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য হাজি আলী আজগার টগর বলেন, ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধুর আহ্বানে স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাপিয়ে পরেছিলো বাংলার দামাল ছেলেরা। ৯ মাস লড়াইয়ের বিনিময়ে পেয়েছিলাম আজকের স্বাধীনতা। স্বাধীনতার সেই মহানায়ক, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবর রহমান স্বপ্ন দেখেছিলেন, নিরক্ষর, ক্ষুধা, সাম্প্রদায়িকমুক্ত ও ধর্ম নিরপক্ষ বাংলাদেশের। একাত্তরের পরাজিত অপশক্তি ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট স্বপরিবারে শেখ মজিবর রহমানকে হত্যার মধ্যদিয়ে সে স্বপ্ন ধুলিশ্বাত করার চেষ্টা করা হয়েছিলো। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাষ্ট্র ক্ষমতায় এসে শেখ মজিবর রহমানের অপূর্ণ স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করছেন নিরন্তর। বাংলাদেশে সব ধর্মের মানুষ আজ সুখে-শান্তিতে কাধে কাধ মিলিয়ে বসবাস করছে। আজ গোটা জাতীকে বিশ্বসভায় মাথা উচু করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশের নাম মাইল ফলক হয়ে দাড়িয়েছে। ২০০৬ সালে শুরু করা হয় বয়স্কভাতা, প্রতিবন্ধি ভাতাসহ বিভিন্ন ধরনের সুযোগ সুবিধা। সেই সাথে দারিদ্রমুক্ত দেশ গঠনে নানামুখী কার্যক্রম শুরু করে সরকার। সরকার ১৩৬ ধরনের সহায়তা প্রধান কার্যক্রম চলমান রেখেছে। শোচিত-বঞ্চিত ও আশ্রয়হীন মেহনতি মানুষের মাথাগোজার ঠাই করেছে শেখ হাসিনা সরকার। সরকারের সকল কর্মসূচি ধারাবাহিকভাবে বাস্তাবায়ন করা হচ্ছে। তাই আসুন আবারও নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে দেশ ও জাতীর উন্নয়নে আ.লীগ সরকার গঠনে এগিয়ে আসি। নির্যাতিত মুসলিম রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বিশ্বনেতা হিসেবে ব্যাপক পরিচিতি পেয়েছেন দেশরতœ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। যে সরকার প্রধান গরীব-দুঃখী মানুষের কথা ভাবে, সেই সরকার বারবার ক্ষমতায় আশা দরকার। তাই আসুন সব ধরনের নৈরাজ্য রুখে দিয়ে আবরও নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে শেখ হাসিনা সরকার গঠনে আ.লীগের পতাকা তলে সমবেত হই। গড়ে তুলি বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ। বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন, দামুড়হুদা উপজেলা আ.লীগের সভাপতি সিরাজুল আলম ঝন্টু, চুয়াডাঙ্গা জেলা আ.লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক পারকৃষ্ণপুর-মদনা ইউপি চেয়ারম্যান জাকারিয়া আলম, অনুষ্ঠানের আয়োজক, হাউলী ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী শাহ মিন্টু। দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোখলেসুর রহমানের সভাপতিত্বে সভায় অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, দর্শনা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর শোনিত কুমার গায়েন, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক জেলা পরিষদের সদস্য শফিউল কবির ইউসুফ। আলোচনা করেন ইউনিয়ন আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ খোকন, ইউপি সদস্য নিজাম উদ্দিন, রিকাত আলী, শহিদুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর আলম টিক্কা। উপজেলা আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুল ইসলামের উপস্থাপনায় আরও উপস্থিত ছিলেন, সিরাজুল মেম্বার, আ.লীগ নেতা সিরাজুল ইসলাম, শাহজামাল, আ. হান্নান, আব্দুল্লাহ সেলিম, আ. হান্নান পটু, সাবিনা ইয়াসমিন, সামপাং সাহা, সংরক্ষিত ইউপি সদস্য রওশনারা, মোমেহার খাতুন, রহিমা খাতুন, যুবলীগনেতা হযরত আলী, আব্দুস সালাম ভুট্টো, রেজাউল ইসলাম, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা নিশান তরফদার, ছাত্রলীগ নেতা প্রভাত, অপু সরকার, রাজ ইসলাম প্রমুখ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *