পুলিশের অস্ত্র ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা, ছাত্রলীগ নেতা আটক

স্টাফ রিপোর্টার: ইজতেমায় ফুটপাতে চাঁদাবাজিতে বাধা দেয়ায় পুলিশের অস্ত্র ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টাকালে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে সৈকত নামের এক ছাত্রলীগ নেতাকে হাতেনাতে আটক করেছে।
ইজতেমার পুলিশ নিয়ন্ত্রণ কক্ষ সূত্রে জানা যায়, গতকাল রোববার আখেরি মোনাজাতের পর ছাত্রলীগকর্মীরা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের স্থানীয় মধুমিতা রোড এলাকায় ফুটপাতের প্রতি দোকান থেকে ১শ থেকে ২শ টাকা করে চাঁদা আদায় করছিলেন। এ সময় ওই এলাকায় নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত পুলিশ সদস্যরা তাদের চাঁদা উত্তোলনে বাধা দেয়। এ নিয়ে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে ৭-৮ জন ছাত্রলীগ নেতাকর্মী তিন পুলিশ সদস্যকে ধরে জোরপূর্বক একটি গলির ভেতর নিয়ে যান এবং সেখান থেকে তাদের অস্ত্র ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করেন। নিয়ন্ত্রণ কক্ষে এই খবর পৌঁছুলে পুলিশের অন্য সদস্যরা দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ সদস্যদের উদ্ধার করেন।
এ সময় পুলিশ ছাত্রলীগ টঙ্গী থানা ছাত্রলীগের সদস্য সৈকতকে আটক করতে সক্ষম হলেও বাকিরা পালিয়ে যায়। সৈকতকে প্রথমে ইজতেমায় পুলিশের নিয়ন্ত্রণ কক্ষে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের পর থানায় হস্তান্তর করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে সৈকত নিজেকে টঙ্গী থানা ছাত্রলীগের সদস্য দাবি করে পুলিশের কাছে তার সহযোগীদের নামও প্রকাশ করেছেন। তারা হলেন টঙ্গী থানা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক নাঈম, থানা ছাত্রলীগের সদস্য শাকিল, রনি, মানিক, শহিদুল। পালিয়ে যাওয়া অন্যদের নাম সে জানে না বলে পুলিশকে জানায়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *