পুলিশি বাধা উপেক্ষা করে জামজামির নারায়ণপুরে বাল্যবিয়ে!

 

 

জামজামি প্রতিনিধি: শেষ পর্যন্ত পাইকপাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী পিংকির বিয়ে ঠেকাতে পারেনি পুলিশ। বিয়ে দেবে না বলে প্রতিশ্রুতি দিলেও গতরাত সাড়ে ৮টার দিকে খানেকটা গোপনেই কনের বাড়ি নারায়ণপুরে বিয়ে সম্পন্ন হয়। এ তথ্য জানিয়ে স্থানীয় একাধিক অভিযোগকারী বলেছেন, বাল্যবিয়ে পড়িয়েছেন শ্রীনগর গ্রামের একটি মসজিদের ইমাম আব্দুল হান্নান।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, চুয়াডাঙ্গা আলমডাঙ্গার জামজামি ইউনিয়নের নারায়ণপুরের পান্নার মেয়ে পিংকির সাথে হরিণাকুণ্ডুর ধুলিয়া গ্রামের ইদ্রিস আলীর বিয়ে ঠিক হয়। পিংকি ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী। বিয়ের বয়স হয়নি বলে অভিযোগ তুলে বিষয়টি পুলিশে জানানো হয়। জামজামি পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আজিজুল সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে কনের বাড়িতে যান। তিনি বাল্যবিয়ে দিতে বারণ করেন। মেয়ের পিতা বিয়ে দেবে না বলে প্রতিশ্রুতি দিলে পুলিশ ক্যাম্পে ফেরে। স্থানীয়রা বলেছে, বাল্যবিয়ের অভিযোগ ওঠার কারণে স্থানীয় কাজি বিয়ে পড়াতে অসম্মত হন। ফলে নওলামারীর আব্দুল হান্নাকে ডেকে মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে বিয়ে সম্পাদন করানো হয়। আব্দুল হান্নান শ্রীনগর গ্রামের একটি জামে মসজিদের পেশ ইমাম বলেও জানিয়েছেন স্থানীয়রা। গতরাতে অভিযুক্ত ইমাম আব্দুল হান্নানের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। ফলে জানা যায়নি তার অভিমত।

 

Leave a comment

Your email address will not be published.