নাইজেরিয়ায় গির্জা ভেঙে ১৭ জনের মৃত্যু

 

মাথাভাঙ্গা মনিটর: নাইজেরিয়ায় গির্জা ভেঙে ১৭ জনের মৃত্যু ও কমপক্ষে শতাধিক আহত হয়েছেন। দেশটির লাগোস আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে ইকোটান শহরে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ন্যাশনাল ইমারজেন্সি ম্যানেজমেন্ট অ্যাজেন্সির (এনইএমএ) সমন্বয়কারী ইব্রাহিম ফেরিনলোয়ি শনিবার বলেন, ভবন ধসে আটকে পড়া ১২৪ জনকে তারা জীবিত উদ্ধার করেছেন। শুক্রবার রাতে গির্জা চত্বরে যাজকদের থাকার জন্য নির্মীয়মান বাড়ি ভেঙে দুর্ঘটনাটি ঘটে৷ উদ্ধার কাজে হাত লাগায় গির্জা কর্তৃপক্ষ। প্রাথমিক ভাবে মৃতের সংখ্যা নিয়ে ধোঁয়াশা দেখা দেয়। গত শনিবার বিপর্যয় মোকাবেলাবাহিনীকে গির্জায় ঢোকার অনুমতি দেয়া হয়। দুর্ঘটনার পরই কেন উদ্ধারকর্মীদের ঢুকতে দেয়া হলো না, সে বিষয়ে কোনো ব্যাখ্যা দেয়নি গির্জা কর্তৃপক্ষ। এ গির্জার প্রধান যাজক টিবি জোসুয়া। আফ্রিকার পাশাপাশি সারা বিশ্বজুড়ে তার ভক্তরা ছড়িয়ে রয়েছেন। দুর্ঘটনার পর জোসুয়া তার ফেসবুকে লিখেছেন, গির্জা ভবন ধসে যে হতাহতের কথা মিডিয়ায় প্রচার হয়েছে তা সঠিক নয়। জোসুয়ার দাবি, হাতে গোনা কয়েকজন আহত হয়েছেন, যাদেরকে সুস্থশরীরে উদ্ধার করা হয়েছে। নাইজেরিয়ার একটি পত্রিকা জোসুয়াকে উদ্ধৃত করে লিখেছে, তুলনামূলক কম উচ্চতায় উড়ন্ত এক বিমান বারবার ভবনটিকে চক্কর দিচ্ছিলো। জোসুয়ার ধারণা, গির্জা ধসের সাথে ওই বিমানেরই সম্পর্ক আছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *