দ্বিগুণ লাভের আশায় সব খোয়ালেন অক্ষয় খান্না

 

মাথাভাঙ্গা মনিটর: অর্থশালী আরো অর্থশালী হওয়ার লোভের ফাদে পড়ে অক্ষয় খান্নার লগ্নিকৃত ৫০ লাখ রুপী বেহাত করে ফেলেছেন। তা উদ্ধারে এখন তিনি মামলা করেছেন। বলিউডের সুপরিচিত অভিনেতা অক্ষয় খান্না মাত্র ৪৫ দিনের মধ্যে তার বিনিয়োগ করা টাকা দ্বিগুণ হয়ে যাবে এমন বিশ্বাসে বিনিয়োগ করেছিলেন ওই রুপি। কিন্তু হায়, তিনি যা বিনিয়োগ করেছিলেন তার পুরোটাই খুইয়েছেন। তাকে ইনটেক ইমেজেস প্রাইভেট লি. এর প্রেসিডেন্ট সত্যব্রত চক্রবর্তী ও পরিচালক তার স্ত্রী সোনা লোভ দেখিয়েছিলেন, মাত্র ৪৫ দিনের মধ্যে বিনিয়োগ করা টাকা দ্বিগুণ হয়ে যায় তাদের প্রকল্পে। পুলিশে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দিয়েছেন অক্ষয় খান্না। এতে তিনি বলেছেন, ২০১০ সালের অক্টোবরে তার মক্কেল অক্ষয় খান্না ইনটেক ইমেজেস নামের প্রতিষ্ঠানে ওই পরিমাণ অর্থ বিনিয়োগ করেন। কিন্তু অক্ষয় বিনিয়োগ করার পর তিন বছরেরও বেশি সময় পাড় হয়ে গেছে। গত শুক্রবার মালাবর হিল পুলিশ স্টেশনে এ অভিযোগ দেয়া হয়। ধুরু বলেছেন, তার মক্কেল অভিনেতা ওই দম্পতির সাথে ২০১০ সালের অক্টোবরে আধেরিতে একটি সামাজিক সমাবেশে সাক্ষাৎ হয়। অভিযোগে বলা হয়েছে, ঠিক ৪৫ দিন পর সত্যব্রত চক্রবর্তীকে ফোন করেন অক্ষয় খান্না। চুক্তিমতো তার কাছে অর্থ ফেরত চান। কিন্তু জবাবে তিনি তাকে অপেক্ষা করতে বলেন। তারা বলেন, তারা ওই অর্থ নতুন করে বিনিয়োগ করে ফেলেছেন। তাই তাকে আরও কিছুদিন সময় নিতে হবে। এক কোটি রুপি ফেরত দেয়া তো দুরের কথা। তারা তাকে আরও ৫০ লাখ রুপি বিনিয়োগ করতে বলেন। এরপর সত্যব্রত চক্রবর্তীর কোম্পানিতে বেশ কতগুলো ই-মেইল করেন। কিন্তু প্রতিবারই তারা তাকে নতুন নতুন অজুহাত দাঁড় করায়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *