দেশে বসে একাত্তরের পরাজিত শক্তি পাকিস্তানের দালালি করা চলবে না

আইলহাস লক্ষ্মীপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে হুইপ ছেলুন জোয়ার্দ্দার এমপি

সরোজগঞ্জ প্রতিনিধি: বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার প্রতি ইঙ্গিত করে হুইপ ছেলুন জোয়ার্দ্দার এমপি বলেছেন, বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া মুক্তিযুদ্ধের সময় যেমন পাকিস্তানের দোসর ছিলেন, এখনও তিনি সে দেশেরই দোসর হিসেবে কাজ করছেন। খালেদা জিয়া স্বাধীনতা বিরোধীদের নিয়ে দেশকে আবারও পাকিস্তান বানাতে চান। তিনি বলেন, দেশে বসে একাত্তরের পরাজিত শক্তি পাকিস্তানের দালালি করা চলবে না। যুদ্ধ করে যাদের পরাজিত করেছি তাদের কোনো প্রেতাত্মাকে এ দেশে দেখতে চাই না। সেই ১৯৭১ সাল থেকে এখনও পর্যন্ত এই দেশে এখনো পাকিস্তানের পরাজিত শক্তি অশুভ চক্রান্তে লিপ্ত আছে। হুইপ ছেলুন জোয়ার্দ্দার আরও বলেন, মায়ের চেয়ে মাসির দরদ বেশি হতে পারে না, দেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে আর তিনি দেশকে পিছিয়ে দেয়ার চেষ্টা চালাচ্ছেন। তা এদেশের মানুষ হতে দেবে না। যে দেশটাকে চাই না তিনি কি করে দেশের মায়া বুঝবেন। তিনি গতকাল শনিবার আলমডাঙ্গার আইলহাস-লক্ষ্মীপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন। জাতীয় সংসদের হুইপ চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি আরও বলেন, বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশ যখন মাথাউঁচু করে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে, দেশ যখন সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে, ঠিক তখন স্বাধীনতাবিরোধী এই চক্র মাথা চাড়া দিয়ে উঠেছে।’ ‘আমাদের নিজ নিজ অবস্থানে থেকে এসব অপশক্তির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।
হুইপ ছেলুন জোয়ার্দ্দার বলেন, আওয়ামী লীগ যখনই ক্ষমতায় আসে তখনই দেশেরে উন্নয়ন হয়। তাই জনগণ আওয়ামী লীগকে ভোট দেয়। দেশের উন্নয়নের জন্য প্রয়োজন আওয়ামী লীগের সরকার। বিএনপি একাধিক মেয়াদে ক্ষমতায় থাকলেও দেশের উন্নয়ন করেনি। বিএনপি উন্নয়ন করতে জানে না, শুধু লুটপাট আর দুর্নীতি করতে পারে। ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের মানুষের স্বাস্থ্যসেবার জন্য কমিউনিটি হেলথ ক্লিনিক স্থাপন করেছিলেন। কিন্তু ২০০১ সালে বিএনপি সরকার ক্ষমতায় এসে সেগুলোর কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়। বর্তমান মহাজোট সরকার আবারও তা চালু করেছে’। আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক দেশকে কখনোই আমরা পেছনের দিকে ফেলে দিতে পারি না।
তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশে আরও বলেন, ঘরে বসে থাকলে হবে না, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থেকে যে সমস্ত উন্নয়ন করেছে তার প্রচার প্রচারণা চালাতে হবে। এলাকার মানুষকে উদ্দেশ্য করে আরও বলেন আমাদের সরকার ক্ষমতায় থাকায় আপনাদের রাস্তা পাকা হয়েছে। সন্ত্রাসীরা এলাকা থেকে বিদায় নিয়েছে, গ্রামের মানুষ আর শহরে গিয়ে থাকতে হয় না, নিজ বাড়িতে সুন্দর পরিবেশে বসবাস করছে।
শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে হুইপ ছেলুন জোয়ার্দ্দার এমপি বলেন, তোমরা শিক্ষকসহ বড়দের সম্মান করবে, সেই সম্মান তোমাদের নিয়ে যাবে কাক্সিক্ষত লক্ষ্যে। তোমরা আজ যারা এই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সুনাগরিক হয়ে মাথাউঁচু করে বলবে আমি আইলহাস-লক্ষ্মীপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র ছিলাম। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিক্ষাকে গুরুত্ব দিয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের হাতে বছরের প্রথম দিনে বই তুলে দিচ্ছেন, যাতে করে লেখাপড়া থেকে ছাত্র-ছাত্রীরা পিছিয়ে না পড়ে।
গতকাল শনিবার সকাল ১১টায় বিদ্যালয় চত্বরে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা পুরস্কার বিতরণ উপলক্ষে আলোচনাসভার আয়োজন করা হয়। সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান অ্যাড. আব্দুল মালেক। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সি আলমগীর হান্নান, খাসকররা ইউপি চেয়ারম্যান মোস্থাফিজুর রহমান রুন্নু, খাসকররা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বিল্লাল গনি, জেলা পরিষদের মেম্বার মাহবুবুর রহমান মোল্লা, বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি আনিচুর রহমান, সাবেক সভাপতি আতিয়ার রহমান, খাসকররা ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক আব্দুল হান্নান, খাসকররা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গোলম সিদ্দিক, আইলহাস-লক্ষ্মীপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তাইজাল হোসেন, পিটিএ কমিটির সভাপতি ফিরোজ আহম্মেদ লাটিম, মহাম্মদজমা ডিএএসএস মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাজমুল ইসলাম শান্তি, পিটিএ কমিটির সদস্য তোফাজ্জেল হক বিশ্বাস, রাশেদা খাতুন নাগদাহ ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস, খাসকররা ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জিয়াউর রহমান প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন ক্রীড়া শিক্ষক ইকবাল মাহামুদ ও সহকারী শিক্ষক আব্দুর রহমান।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *