দু নেত্রীর বক্তব্যে আলোচনার দরজা খুলে গেছে : মজীনার

স্টাফ রিপোর্টার: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং বিএনপি চেয়ারপারসন ও বিরোধীদলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়ার বক্তব্যের পর আলোচনার দ্বার উন্মোচিত হয়েছে বলে মনে করেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত ড্যান ডব্লিউ মজীনা। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় খালেদার সাথে তার গুলশান কার্যালয়ে বৈঠকের পর সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ মন্তব্য করেন। সন্ধ্যা সোয়া ৭টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত তাদের বৈঠক চলে। বিকেলে রাজধানীর একটি হোটেলে  নির্দলীয় সরকারের একটি রূপরেখা দেন খালেদা। খালেদার এ প্রস্তাবের আগে গত শুক্রবার জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনকালীন সর্বদলীয় সরকার গঠনের প্রস্তাব দেন। এজন্য তিনি বিরোধীদলীয় নেতার কাছে বিরোধীদলীয় সংসদ সদস্যদের নাম চান। শনিবার রাতে গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে দলটির সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম স্থায়ী কমিটির বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্বাচনকালীন সরকারের প্রস্তাব নাকচের সিদ্ধান্ত হয়।

মজীনা বলেন, দু নেত্রীর বক্তব্যের পর আলোচনার দ্বার উন্মোচিত হয়েছে। দু দলের উচিত এ সুযোগ কাজে লাগানো। দু দল অর্থবহ সংলাপের মাধ্যমে একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন করবে বলে আশা প্রকাশ করেন মজীনা। ১৮ দলের ওই সমাবেশের ব্যাপারে বৈঠকে আলোচনা হয়েছে কি-না এমন প্রশ্নের জবাবে মজীনা ‘না’ সূচক জবাব দেন। আর সমাবেশে নিষেধাজ্ঞার ব্যাপারে জানতে চাইলে সরাসরি উত্তর দেননি মার্কিন রাষ্ট্রদূত। এ প্রশ্নের জবাবে তার বক্তব্য, সভা-সমাবেশ করা গণতান্ত্রিক অধিকার।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *