দীর্ঘদিনের ব্যবসা সততার সাথে পরিচালিনার সুযোগ চেয়ে একেএম সালাউদ্দীন মিঠুর বিবৃতি

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার ফিল্ম ফেয়ার ক্যাবল টিভি (সিটি ক্যাবল) এর পক্ষে একেএম সালাউদ্দিন মিঠু এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘দীর্ঘ ২০ বছর ধরে যে ব্যবসা সততার সাথে করে আসছি তা সততার সাথে পরিচালনার সুযোগ চাই। প্রয়োজনে সকল প্রকার তদন্ত হোক। তদন্ত করে কোথাও কোনো ত্রুটি থাকলে অবশ্যই আমার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে প্রশাসন।’
ফিল্ম ফেয়ার ক্যাবল টিভি (সিটি ক্যাবল) এর পরিচালক কেএম সালাউদ্দীন মিঠুর বিরুদ্ধে পে-চ্যানেল না নিয়ে অবৈধভাবে বাণিজ্যের অভিযোগ তুলে তা বন্ধের দাবি তোলেন একই ব্যবসার পৃথক মালিকেরা। এরই প্রেক্ষিতে পত্রিকায় প্রতিবেদনও প্রকাশিত হয়। যার ফলে একেএম সালাউদ্দীন মিঠু এক বিবৃতিতে অভিযোগের সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করে ১৯৯৯ সাল থেকে ব্যাবসা পরিচালনা শুরুর পর থেকে ২০ বছর ধরে চুয়াডাঙ্গা ক্যাবল টিভি মালিক সমিতির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালনের বিস্তারিত বর্ণনা তুলে ধরে বলেছেন, অবৈধ নয়, বৈধভাবেই দীর্ঘদিন ধরে ক্যাবল টিভি ব্যবসা করে আসছি। ২০১৬ সালে নিজের উদ্যোগে একটি কন্ট্রোলরুম চালু করে ব্যবসা পরিচালনা করতে শুরু করি। ওই সময় ডিশ মালিকদের চুয়াডাঙ্গা শহরের নিজ নিজ এলাকা নির্ধারণ করে লিখিতভাবে রাখা হয়। এরপরও আমার এলাকার ডিশক্যাবল কেটে দিয়ে অন্যরা সংযোগ দেয়াসহ নানা অনিয়ম করতে থাকে। এ নিয়ে মাননীয় সংসদ সদস্যের নিকট নালিশ করি। তিনি সমাধান দিয়ে এক বছরের মধ্যে সকলকে নিজ নিজ এলাকায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ব্যবসা পরিচালনার নির্দেশনা দেন। অথচ তা না মেনে চুয়াডাঙ্গা সদরসহ দুটি উপজেলায় মালিকগণ একভূত হয়ে সেন্ট্রাল ক্যাবল নেটওয়ার্ক থেকে সেন্ট্রাল ফিড অপারেটর করে। ওরাই আমার ব্যবসার ক্ষতিসাধন করে আমার বিরুদ্ধেই পে-চ্যানেল অবৈধভাবে ব্যবহারের অভিযোগ তুলেছে। যা সত্য নয়। কারণ বিগত দিনেও তদন্ত হয়েছে। তাছাড়া আমার স্বাক্ষর কীভাবে জাল করা হয়েছে তাও আমি প্রশাসনের দৃষ্টিগোচর করেছি। এমতাবস্থায়ও আমি কারও বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ না তুলে শুধু আমি আমার ব্যবসা নির্বিঘেœ যাতে করতে পারি সে লক্ষ্যে প্রশাসনের সহৃদয় দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *