দামুড়হুদা উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে নসিমন-করিমন চালকদের জরুরি বৈঠক

দামুড়হুদা প্রতিনিধি: দামুড়হুদা উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে অবৈধযান নসিমন করিমন ও আলমসাধু চালকদের সাথে জরুরি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শনিবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে ইউএনও মো. ফরিদুর রহমান ও মডেল থানার ওসি আহসান হাবিব উপজেলার প্রায় দেড় শতাধিক চালকদের সাথে জরুরি বৈঠকে বসেন। সভায় হাইকোর্টের নির্দেশনা পড়ে শোনানো হয় এবং আজ রোববার থেকে দামুড়হুদা-দর্শনা এবং দর্শনা-কার্পাসডাঙ্গা ভায়া আটকবর সড়কে নসিমন-করিমন ও আলমসাধুসহ শ্যালোইঞ্জিনচালিত অবৈধযান না চালানোর অনুরোধ জানান।

এ সময় চালকদের মধ্য থেকে রফিকুল ইসলাম, লাল্টু, আজাদ ও ইলিয়াছ হোসেন তাদের সমস্যার কথা তুলে ধরলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও মডেল থানার ওসি অভিন্ন সুরে বলেন, আপনারা একদিকে যেমন রাতে পুলিশের টহল ডিউটি, নির্বাচনী কাজে ব্যবহারসহ এলাকার কৃষকের সবজি থেকে শুরু করে বিভিন্ন কৃষিপণ্য দ্রুত অন্যত্র পৌঁছে দিয়ে এলাকার জীবন-জীবিকার মানোন্নয়নে ভূমিকা রাখছেন, অপরদিকে আপনাদের ওই অবৈধযানের ধাক্কায় এলাকার অসংখ্য মানুষ আজ পঙ্গুত্ব বরণ করতে চলেছে। সর্বোপরি হাইকোর্টের নির্দেশ মোতাবেক আর মহাসড়কে চালানো যাবে না। এরপর থেকে মহাসড়কে চালালেই আটক করা হবে।

উল্লেখ্য, হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিচ ফর বাংলাদেশ নামক প্রতিষ্ঠানের পক্ষে সংস্থার সেক্রেটারি অ্যাড. আসাদুজ্জামান সিদ্দিক দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ১০টি জেলায় নসিমন-করিমন, আলমসাধুসহ শ্যালোইঞ্জিনচালিত অবৈধযান বন্ধের জন্য হাইকোর্টে গত ২৯ জানুয়ারি রিট দায়ের করেন। হাইকোর্ট ওই রিটের প্রেক্ষিতেই ওই ১০টি জেলায় মহাসড়কে নসিমন-করিমন, আলমসাধুসহ শ্যালোইঞ্জিনচালিত অবৈধযান চালানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেন বলে জানান দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার।

Leave a comment

Your email address will not be published.