দামুড়হুদায় রেললাইন পাহারা দেয়া ৩২ জন আনসার সদস্য আজও পাননি দিন হাজিরার টাকা

 

দামুড়হুদা প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলায় রেললাইন পাহারা দেয়া ৩২ জন আনসার সদস্য তারা তাদের দিন হাজিরার টাকা না পেয়ে অনেকটাই মানবেতর জীবনযাপন করছেন। গত সংসদ নির্বাচনের আগে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীরা যখন একের পর এক রেললাইনে আগুন দিয়ে লাইন উপড়ে ফেলাসহ বিভিন্ন নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড চালিয়ে সারাদেশের অধিকাংশ রেলপথ অচল ফেলেছিলো।তখন রেলওয়েকে লোকসানের হাত থেকে রক্ষা করাসহ যাত্রীদের জন্য রেলপথ নিরাপদ করার লক্ষ্যে সরকারের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে সারাদেশের রেলযোগাযোগ নিরিবিচ্ছিন্ন রাখতে আনসার ও ভিডিপি সদস্যদের দিয়ে ৩৫০ টাকা দিন হাজিরায় পাহারার ব্যবস্থা করা হয়। কিন্তু জীবন বাঁজিরেখে যেসকল আনসার বাহিনীর সদস্যরা রেললাইন পাহারা দিয়েছেন তারা আজও পাননি তাদের দিন হাজিরার টাকা।

সংশ্লিষ্টসূত্রে জানা গেছে, আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর চুয়াডাঙ্গা জেলা কমান্ড্যান্ট গত ৬ ডিসেম্বর ২০১৩ ইং তারিখে ৮৮৫ নং স্বারকের আদেশে দামুড়হুদা উপজেলায় রেললাইনের ৪টি গুরুত্বপূর্ণ পয়েটে ৮ জন করে মোট ৩২ জন আনসার সদস্যকে রেললাইন পাহারার জন্য নিয়োগ দিতে উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেন। সে মোতাবেক দামুড়হুদা উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা মওলা করিম রেললাইনের ৪টি পয়েটে ৮ জন করে মোট ৩২ জন আনসার সদস্যকে নিয়োগ দেন। ওই ৩২ জন আনসার সদস্য জীবন বাঁজিরেখে প্রায় ৩ মাস রেললাইন পাহারা দিয়ে রেল যোগাযোগ ব্যবস্থা স্বাভাবিক রাখতে সহযোগিতা করেন। কিন্ত যে সকল আনসার ও ভিডিপি সদস্যরা রেললাইন দিনরাত পাহারা দিয়েছে আজও পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট বিভাগ থেকে তাদের দিন হাজিরার টাকা পরিশোধ করা হয়নি। ফলে ওই সমস্ত আনসার সদস্যরা মানবেতর দিন যাপন করছেন।

এ ব্যাপারে দামুড়হুদা উপজেলা আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা মওলা করিম জানান, এখানে আমাদের কিছু করার নেই। সরকারের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে আমরা আমাদের কর্মীবাহিনী দিয়ে রেলবিভাগকে সহযোগিতা করেছি। রেলবিভাগ থেকে টাকা না দেয়া পর্যন্ত আমরা তাদের পাওনা টাকা দিতে পারছিনা। তবে আমি উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে এ বিষয়ে আলাপ করেছি। অল্পদিনের মধ্যেই ওই টাকা পাওয়া যাবে বলে আশা করছি।

Leave a comment

Your email address will not be published.