দামুড়হুদায় ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরমালিককে আর্থিক সহায়তা প্রদান

 

দামুড়হুদা প্রতিনিধি: দামুড়হুদায় ঝড়ে বটগাছ ভেঙে পড়ে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরমালিক কাদিপুর গোরস্তানপাড়ার মিনারুলের হাতে আর্থিক সহায়তা হিসেবে দামুড়হুদা উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে নগদ ৫ হাজার টাকা তুলে দেয়া হয়েছে। গতকাল রোববার বেলা ১১টার দিকে দামুড়হুদা উপজেলা চেয়ারম্যান মাও. আজিজুর রহমান ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ফরিদুর রহমান ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িঘর পরিদর্শন করতে কাদিপুর গোরস্তানপাড়ার মিনারুলের বাড়িতে যান এবং ওই নগদ অর্থ তুলে দেন।

এ বিষয়ে দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান, প্রাথমিকভাবে তাকে ৫ হাজার টাকা দেয়া হয়েছে। কয়েক দিনের মধ্যে তাকে আরও ১০ হাজার টাকা আর্থিক সহায়তা দেয়া হবে। এছাড়া ওই এলাকায় ঝড়ে যাদের বাড়িঘর নষ্ট হয়েছে তাদের তালিকা করা হচ্ছে। তাদেরকেও কমবেশী আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হবে।

উল্লেখ্য, গত শনিবার বিকেল ৫টার দিকে আকস্মিক দমকাঝড় আর শীলাবৃষ্টিতে কাদিপুর গোরস্তানপাড়ায় একটি পুরোনো বটগাছ ভেঙে যায় এবং বটগাছটি মিনারুলের টিনের বসতঘরের ওপর পড়ে বসতঘরটি নষ্ট হয়। সেই সাথে গাছের ডালপালার নিচে চাপা পড়ে আহত হন মিনারুলের স্ত্রী রহিমা খাতুন। স্থানীয়রা তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে। তার দু পা ভেঙে যায়। দমকাঝড়ে আরও একটি বটগাছ ভেঙে কাদিপুর স্কুলপাড়ার মৃত গোলাম মণ্ডলের ছেলে তাহাজদ্দিনের টিনের বসতঘরের ওপর পড়ে এবং বসতঘরটি তছনছ হয়। এছাড়া কাদিপুর গাংপাড়ার মৃত নিয়ামত আলীর ছেলে মজিবার রহমানের, একইপাড়ার ময়জদ্দিনের ছেলে তাহাজের, মসল উদ্দিনের ছেলে রবগুলের, ছানোয়ারের ছেলে ইয়ারুলের, আহার আলীর ছেলে জমির উদ্দিনের, ইসমাইলের ছেলে খলিলের, শাহার আলীর ছেলে খাইরুলের, আমিরুলের ছেলে ডালিমের, করিমের ছেলে মকবুলের, জলিলের ছেলে খোকাসহ উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের প্রায় শতাধিক টিনের বসতঘরের চাল উড়ে যায়।

Leave a comment

Your email address will not be published.