দামুড়হুদার কার্পাসডাঙ্গা বাজারে আজও লাগেনি আধুনিকতার ছোঁয়া

 

 

কার্পাসডাঙ্গা প্রতিনিধি: দামুড়হুদার সীমান্তবর্তী ঐতিহ্যবাহী কার্পাসডাঙ্গা বাজারে আজও আধুনিকতার ছোঁয়া লাগেনি। প্রতিবছর লাখ লাখ টাকার রাজস্ব আদায় হয়। এ বছর প্রায় ৮ লাখ টাকায়কার্পাসডাঙ্গা হাটটি বিক্রি করা হয়েছে। অথচ দীর্ঘদিন থেকে এ ঐতিহ্যবাহী হাটটির কোনো উন্নয়ন হয়নি। বিশেষ করে ব্রিজ মোড়ে মাছ ও মাংসের বাজারে সব সময় স্যাঁতসেতে হয়ে থাকে। এছাড়া বাজারে ছোটখাটো কোনো সংস্কার করা হয়নি। ৮/১০ বছর আগেই ড্রেনেজ ব্যবস্থা নির্মাণ করা হলেও দেখাশোনার অভাবে সেগুলো মাটি ভরাটে বুজে আছেএবং ড্রেনের ওপরে একটি কুচক্রীমহল পাকা দোকান নির্মাণ করায় ড্রেন ভরাটের মূল কারণ।

প্রতি সপ্তায়দু দিন হাট বসে।কার্পাসডাঙ্গাসহ আশপাশ ২০/২৫টি গ্রামের লোকজন এহাটে বেচা-কেনা করেন।এখানে একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, বালিকা বিদ্যালয়, মাদরাসা, প্রাইমারি স্কুল ও কলেজ রয়েছে। বিশেষ করে হাটের দিন এ রাস্তা দিয়ে শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানগামী শিক্ষার্থীদের যাতায়াত দুষ্কর হয়ে পড়ে। করিমন, আলমসাধু, বাসস্টপেজ করেছে ব্রিজ মোড়ে। একারণে ব্রিজ মোড়ে যানজট লেগেই থাকে। অপরদিকে কাস্টমমোড়ে ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় বৃষ্টি হলেই হাঁটু পানি জমে থাকে। ফলে লোকজনের যাতায়াতে চরম দুর্ভোগ পোয়াতে হয়।

এবিষয়ে কার্পাসডাঙ্গা দোকান মালিক সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মারুফ শাহ্ জানান,‘আমরা নামে মাত্র কমিটিতে আছি। আমাদের আজ পর্যন্ত উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে কেউ ডাকে না। এব্যাপারে দামুড়হুদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ফরিদুর রহমান জানান, যদি পরিকল্পনা মাফিক দোকানগুলো বসানো যেতো তাহলে এঅবস্থার সৃষ্টি হতো না। তবে ড্রেনেজ ব্যবস্থা আমাদের মাথায় রয়েছে।

 

Leave a comment

Your email address will not be published.