দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন-২০১৪ : চুয়াডাঙ্গায় ভোটগ্রহণে নির্বাচন কার্যালয় প্রস্তুত

0
38

স্টাফ রিপোর্টার: প্রধান নির্বাচন কমিশনার রকিব উদ্দিন আহমেদ গতকাল সোমবার রাতে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন-২০১৪’র তফশিল ঘোষণা করেছেন। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণের জন্য চুয়াডাঙ্গায় জেলা নির্বাচন কার্যালয় ইতোমধ্যে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে। প্রস্তুতি হিসেবে জেলায় ভোটগ্রহণের কর্মকর্তাদের প্যানেল, ভোটার তালিকা প্রস্তুত, মনোনয়ন ফরম, ভোটার তালিকার সিডি ও সকল ভোটকেন্দ্রসহ নির্বাচন কার্যালয়ে পুলিশি প্রহরার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

সংশিষ্টসূত্রে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা জেলায় ভোটগ্রহণের প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণের জন্য সম্ভাব্য প্রিজাইডিং অফিসার হিসেবে মনোনীত কর্মকর্তা-কর্মাচারীর ১০ শতাংশ হিসেবে অতিরিক্ত ৩৫২ জনকে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে চুয়াডাঙ্গা সদরে ৯৪ জন, আলমডাঙ্গায় ১১৪ জন, দামুড়হুদায় ৮৫ জন ও জীবননগরে ৫৯ জন।

সম্ভাব্য সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার হিসেবে মনোনীত কর্মকর্তা-কর্মাচারীর সংখ্যা শতকরা ১০ ভাগসহ দু হাজার ৬২ জন তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে চুয়াডাঙ্গা সদরে ৫৫২ জন, আলমডাঙ্গায় ৬১৯ জন, দামুড়হুদায় ৫৫২ জন ও জীবননগরে ৩৩৯ জন। সম্ভাব্য পোলিং অফিসার হিসেবে মনোনীত কর্মকর্তা-কর্মাচারীর সংখ্যাং শতকরা ১০ ভাগসহ চার হাজার ১২১ জন তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। এর মধ্যে চুয়াডাঙ্গা সদরে ১ হাজার ১০৩ জন, আলমডাঙ্গায় ১ হাজার ২৩৭ জন, দামুড়হুদায় ১ হাজার ১০৩ জন ও জীবননগরে ৬৭৮ জন।

চুয়াডাঙ্গায় জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দুটি আসন। সদর উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়ন, একটি পৌরসভা এবং আলমডাঙ্গা উপজেলার ১৫টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা নিয়ে চুয়াডাঙ্গা-১ নির্বাচনী এলাকা।

অপরদিকে দামুড়হুদা উপজেলার সাতটি ইউনিয়ন, একটি পৌরসভা, জীবননগর উপজেলার ছয়টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা এবং সদর উপজেলার বেগমপুর ও তিতুদহ ইউনিয়ন নিয়ে চুয়াডাঙ্গা-২ নির্বাচনী এলাকা।

চুয়াডাঙ্গা-১ আসনে বর্তমান মোট ভোটার সংখ্যা তিন লাখ ৯৬ হাজার ৯০৩। যার মধ্যে পুরুষ একলাখ ৯৬ হাজার ৮১০ এবং মহিলা দু লাখ ৯৩। এ আসনের ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা ১৬৬ এবং বুথ ৯২৭। চুয়াডাঙ্গা-২ আসনে বর্তমান মোট ভোটার সংখ্যা তিন লাখ ৬৭ হাজার ৭৪২। এর মধ্যে পুরুষ এক লাখ ৮৩ হাজার ৬৪০ এবং মহিলা এক লাখ ৮৪ হাজার ১০২। ভোটকেন্দ্রের সংখ্যা ১৫২ এবং বুথ সংখ্যা ৯৪৫।

ঢাকা নির্বাচন কমিশন থেকে মনোনয়ন ফরম পাঠানো হয়েছে প্রতি আসনের জন্য ১২৫টি করে। ফরম বিনামূল্যে প্রার্থীরা পাবেন। তবে, জমা দেয়ার সময় জামানত হিসেবে মোটা অংকের টাকা জমা দিতে হবে। এছাড়া ছবি বাদে ভোটারদের নামের তালিকার সিডি পাওয়া যাবে প্রতিটি ইউনিয়নের জন্য ৫০০ টাকা ও পৌরসভার প্রতিটি ওয়ার্ডের জন্য ৫০০ টাকা দামে। এছাড়া নির্বাচনকে শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করার জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাবকে সতর্ক অবস্থায় রাখা হয়েছে।

চুয়াডাঙ্গা জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা মেনে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here