দর্শনা মোটরশ্রমিক ইউনিয়ন নির্বাচন আজ বাদে কাল : ১২ পদের বিপরীতে ভোটযুদ্ধে লড়ছেন ২৬ প্রার্থী

দর্শনা অফিস: চুয়াডাঙ্গা জেলা বাস-ট্রাক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের দর্শনা শাখা কার্যালয়ের নির্বাচন আজ বাদে কাল শনিবার। গত ২৯ জুন সাধারণ সভায় সিদ্ধান্ত মোতাবেক এ নির্বাচনের দিনক্ষণ নির্ধারণ করা হয়। জেলা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি এম জেনারেল ইসলামকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার করে ১৮ সদস্য বিশিষ্ট নির্বাচন পরিচালনা পর্ষদ এ নির্বাচনের সকল প্রস্তুতি প্রায় শেষ করেছেন। নির্ধারিত সময়ের প্রায় ৮ মাস পর এবারের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এবারের নির্বাচনে পুরাতনের তুলনায় নতুন মুখের প্রতিদ্বন্দ্বিতা বেশি লক্ষ্যণীয়। ভোটযুদ্ধে বয়স্ক প্রার্থীদের চেয়ে তরুণ প্রার্থীরা প্রচারণায় বেশ এগিয়ে রয়েছে। সকল প্রার্থী ছবি সংবলিত পোস্টারে পোস্টারে ছেয়ে ফেলেছে এলাকা। শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের নির্বাচনকে ঘিরে যেমন ব্যস্ত প্রার্থীরা, তেমনি ব্যস্ত সমর্থক ও ভোটাররা। যে যার পছন্দের প্রার্থীর পক্ষে কাজ করছে। নির্বাচনের মূ কেন্দ্র বিন্দু হয়ে পড়েছে দর্শনা মাইক্রোস্ট্যান্ড। ফলে ভোর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত মাইক্রোস্ট্যান্ডে প্রার্থী, সমর্থক ও ভোটদের সরগরম দেখা যায়।
জানা গেছে, ২০১৪ সালের ২২ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হয় দর্শনা মোটর শ্রমিক ইউনিয়ন নির্বাচন। সে হিসেব মতে এবারের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে প্রায় ২ বছর ৮ মাস পর। দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনের মেয়াদকাল ৮ মাস আগে অতিবাহিত হলেও ইউনিয়নের উন্নয়ন জনিত কারণে নির্বাচন পিছিয়ে যায়। এ নির্বাচনে ১ হাজার ২৯৪ জন ভোটার গোপন ব্যালোটের মাধ্যমে ৫টি বুথে ভোটাধীকার প্রয়োগের সুযোগ করেছে নির্বাচন পরিচালনা কমিটি। আগামীকাল শনিবার সকাল ৮টা থেকে বিরতিহীনভাবে বিকেল ৩টা পর্যন্ত ইউনিয়ন কার্যালয়ে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ইউনিয়নের ১৩টি পদের মধ্যে ১২টি পদের বিপরীতে এবারের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ২৬ জন প্রার্থী। কোন প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক পদে আলমগীর হোসেন আবারো বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। সভাপতি পদে ভোটযুদ্ধে রয়েছেন, বর্তমান সভাপতি মোতালেব হোসেন (লাঙল), বিল্লাল হোসেন (ছাতা) ও ফকির ড্রাইভার (হারিকেন)। সহসভাপতি ২টি পদের বিপরিতে লড়ছেন মিনারুল ইসলাম মিনা (খেজুরগাছ), আবুল হোসেন (হারিকেন), আজাদুল ইসলাম (চেয়ার) ও ফজলুর রহমান (দাড়িপাল্লা)। সাধারণ সম্পাদক পদে বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মজিবুল আলম বকুল (হাতুড়ি), আশরাফুল আলম সন্টু (বাইসাইকেল), জাকারিয়া জাকির (মশাল) ও নাজিম ড্রাইভার (কুঁড়েঘর)। যুগ্মসম্পাদক পদে আ. রহমান (মাছ) ও আনোয়ার হোসেন (টাইয়ার)। সহসম্পাদক পদে পিন্টু (হাতি) ও সাদ্দাম (ট্রাক)। ক্যাশিয়ার পদে মজিবর রহমান (চশমা) ও লিটন ড্রাইভার (কলস)। প্রচার ও দফতর সম্পাদক পদে জসিম উদ্দিন (রিকশা), আনিস (মোমবাতি) ও সাঈদ (মই)। ৪টি সদস্য পদের বিপরীতে রয়েছেন- গিয়াস উদ্দিন (হাতপাখা), আমিরুল ইসলাম (মোরগ), শহিদুল ইসলাম (আম), ওয়াসিম (হাস) ও মন্টু (ফুটবল) প্রতীকে। এখন শুধু দেখার অপেক্ষামাত্র। কে কে পরবেন বিজয়ের মালা, হাসবেন বিজয়ের হাসি।

Leave a comment

Your email address will not be published.