দর্শনা দক্ষিণচাঁদপুরে বিধবা নারীর ঘরে ঢুকে পল্লী চিকিৎসক গ্যাঁড়াকলে

দর্শনা অফিস: আবারও বিধবা নারী আলেয়ার ঘরে ঢুকে গ্যাঁড়াকলে পড়েছেন দর্শনা হল্টস্টেশনের আলোচিত পল্লী চিকিৎসক জাহিদ হাসান। দেয়া হয়েছে উত্তম-মধ্যম। জনরোষের মুখে বিয়ে করতে রাজি হয়ে কাজি বাড়ি যাওয়ার পথে পালিয়েছে জাহিদ। আবারও থানায় নালিশের প্রস্তুতি আলেয়ার। দর্শনা পৌর এলাকার দক্ষিণচাঁদপুর কেওরাতলাপাড়ার মুনশাদ মল্লিকের ছেলে জাহিদ হাসান (৪০) দীর্ঘদিন ধরে দর্শনা হল্টস্টেশন এলাকায় পল্লী চিকিৎসা দিয়ে আসছেন। চিকিৎসা নেয়ার সুবাধে পরিচয় হয় একই মহল্লার বাশতলাপাড়ার মৃত মোসলেম উদ্দিনের স্ত্রী আলেয়া বেগমের (৫০) সাথে। মহল্লাবাসী বলেছে, প্রায় ৭/৮ বছর ধরে জাহিদ হাসানের সাথে আলেয়ার রয়েছে পরকীয়া সম্পর্ক। এ সম্পর্কের কারণে প্রায় রাতের আধারে চিকিৎসার নামে আলেয়ার নির্জন বাড়িতে যাতায়াত করে আসছিলেন জাহিদ হাসান। কিছুদিন আগে জাহিদ ও আলেয়াকে মহল্লাবাসী আপত্তিকর অবস্থায় ধরে দেয় থানা পুলিশে। থানা পুলিশের কাছে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দেয়ায় জাহিদকে ছেড়ে দেয় পুলিশ। জাহিদ হাসান ফের গত শনিবার রাত ১১টার দিকে আলেয়ার ঘরে ঢুকে অনৈতিক কর্মকা-ে জড়িয়ে পড়ে। এ সময় বেরসিক জনতা হাতেনাতে পাকড়াও করে জাহিদ ও আলেয়াকে। জাহিদকে উত্তম-মাধ্যম দিয়ে গভীর রাত পর্যন্ত আটকে রাখার এক পর্যায়ে আলেয়াকে বিয়ে করতে রাজি হয়। জাহিদের প্রস্তাব মোতাবেক আলেয়া ও জাহিদকে নেয়া হচ্ছিলো কাজি বাড়ি। এ সময় সুযোগ বুঝে ভোদৌড় দিয়ে পালিয়ে যায় জাহিদ হাসান। এ ঘটনায় ফের জাহিদের বিরুদ্ধে আলেয়া পুলিশে নালিশের প্রক্রিয়া চালাচ্ছে বলে শোনা গেছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *