দর্শনায় প্রবাসীর স্ত্রীর নিকট চাঁদা দাবির অভিযোগে মামলা : সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিছিল

 

স্টাফ রিপোর্টার: সাংবাদিক হারুন রাজুকে নিয়ে যে রটনা রটানো হযেছে তা ষড়যন্ত্রমূলক। দর্শনা প্রেসক্লাব গঠিত তদন্ত প্রতিবেদনে বিষয়টি স্পষ্ট হলেও একজন প্রবাসীর স্ত্রীকে জড়িয়ে মনগড়া গুজব ছড়ানো হচ্ছে। স্থানীয় সাংবাদিকরা এ তথ্য জানিয়ে বলেছেন, দর্শনায় সংবাদিক হারুন রাজুর বিরুদ্ধে গতকাল কয়েকজন ব্যক্তি মিছিল করেছে। তারাই আজ সকালে মানববন্ধনের কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। এ নিয়ে উত্তেজনা দানা বেঁধেছে। অপরদিকে দর্শনা বাসস্ট্যান্ডপাড়ায় প্রবাসীর স্ত্রীর কাছে চাঁদাদাবি ও হামলা চালানোর অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ১২ জনকে অভিযুক্ত করে চুয়াডাঙ্গা আদালতে মামলা দায়ের করেন প্রবাসীর স্ত্রী।

দর্শনা মাস্টারপাড়ার প্রবাসির স্ত্রী বলেছেন, স্থানীয় একটি ক্লাবের পরিচয়ে ১০/১২ জনের যুবক ১ লাখ টাকা চাঁদাদাবি করে। কোরবানি ঈদের আগের দিন বেলা ৫টার দিকে ওই যুবকরা প্রবাসীর স্ত্রীর বাড়িতে গিয়ে চাঁদার টাকা পরিশোধের দাবি করলে শুরু হয় বাক-বিতণ্ডা। এক পর্যায়ে অভিযুক্ত চাঁদাবাজরা তার কিশোরী মেয়ে ও শিশু ছেলেকে অপহরণের অপচেষ্ঠা চালিয়ে ব্যার্থ হয়। উপায়ন্তর না পেয়ে আধারে বাড়ি ছেড়ে পালাতে বাধ্য হই। এসব বিষয়ে মামলা করা হলে আদালত সিআইডিতে তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের আদেশ দিয়েছে।

অপরদিকে ওই প্রবাসীর স্ত্রীকে নিয়ে সংবাদিক হারুন রাজুর বিরুদ্ধে তোলা হয় আপত্তিকর অভিযোগ। এ বিষয়ে দর্শনা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক হারুন রাজু বলেছেন, প্রবাসী একজন বড়ভাই। ঈদের আগের দিন কোরবানির ভাগার টাকা নিতে গেলে আমাকে জড়িয়ে যাচ্ছে তাই বলে। ওরা ঘটনাটি ভিন্নখাতে নেয়ার জন্য বানোয়াট অভিযোগ তুলে পানি ঘোলা করার চেষ্টা চালাচ্ছে। দর্শনা প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দ বলেছেন, তারই অংশ হিসেবে রোববার বিকেলে কয়েকজন মিছিল করেছে। মানববন্ধনের ঘোষণা দিয়েছে। ওদের হুমকি ধামকি অব্যাহত থাকার কারণে প্রবাসীর স্ত্রী সন্তান নিযে বাসায় ফিরতে পারেননি। চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। মেয়ে মডেল টেস্টে অংশ নিতে ভয়পাচ্ছে। এদিকে পুলিশ সুপারের আশু দৃষ্ট কামনা করা হযেছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *