দর্শনার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সেন্টু শাহর ইন্তেকাল : আজ দাফন

 

দর্শনা অফিস: দর্শনার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সিকেন্দার আলী শাহ সেন্টু ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহে——রাজেউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৫৬ বছর। আজ সোমবার সকাল ১০টায় কেরুজ বাজার মাঠ ও বেলা সাড়ে ১১টায় তার নিজ গ্রাম লোকনাথপুর ফুটবল মাঠে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, সেন্টু শাহ দীর্ঘদিন কিডনিজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন। ৬ মাস ভারতে চিকিৎসা শেষে তাকে বাড়িতে আনা হয়। লোকনাথপুর গ্রামের বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল ওদুদ শাহর ছেলে সিকেন্দার সিন্দেকার আলী সেন্টু শাহকে গত শনিবার সকালে দর্শনা পুরাতন বাজার পাড়াস্থ বাড়িতে আনা হলে তার অবস্থার চরম অবনতি দেখা দেয়। সাথে সাথে অ্যাম্বুলেন্স যোগে নেয়া হয় ঢাকার বার্ডেম হাসপাতালে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল রোববার বিকেল ৪টা ১০ মিনিটে তিনি মারা যান। মৃত্যকালে তিনি স্ত্রী, ২ ছেলে ও ১ মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। দামুড়হুদা উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা লিয়াকত আলী শাহ ও হাউলী ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী শাহ মিন্টুর ভাই ছিলেন সেন্টু শাহ। ঢাকার মোহাম্মদপুরে সেন্টুর লাশের প্রথম নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয় গতরাতে বাদ এশা। এরপর রাত সাড়ে ১০টায় তার লাশ নিয়ে দর্শনার উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন স্বজনরা। আজ ভোর নাগাদ সেন্টুর লাশ দর্শনায় পৌঁছানো হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আজ সোমবার সকাল ১০টায় কেরুজ বাজার মাঠ ও বেলা সাড়ে ১১টায় লোকনাথপুর ফুটবল মাঠে নামাজে শেষে লোকনাথপুর পারিবারিক গোরস্তানে দাফন সম্পন্ন হবে বলে পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

সেন্টু শাহ ছিলেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক সমিতির উপদেষ্টা, ঢাকাস্থ দর্শনা পরিবারের ভাইস প্রেসিডেন্ট, সাবেক দামুড়হুদা বিআরডিপির চেয়ারম্যান ও দর্শনা সরকারি কলেজের এজিএস। তিনি ছিলেন ৬ ভাই ও দুই বোনের মধ্যে তৃতীয়। তার পিতার নামানুসারে দামুড়হুদার আবদুল ওদুদ শাহ ডিগ্রি কলেজটি তাদের পরিবারের অর্থায়নে স্থাপিত হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *