দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ৬ জেলায় ভুট্টার বাম্পার ফলন : দেশের শীর্ষে চুয়াডাঙ্গা

স্টাফ রিপোর্টার: দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ৬ জেলায় ভুট্টার বাম্পার ফলনে চাষির মুখে হাসি ফুটেছে। মাঠের পর মাঠ জমিতে সবুজ পাতার আড়ালে মুচা বেঁধেছে হলুদ রঙের ভুট্টা। এ বছর ভুট্টার ফলন ভালো হওয়ায় চাষিরা লাভের স্বপ্ন দেখছেন।
কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, লাভজনক হওয়ায় যশোর অঞ্চলের ৬ জেলায় ভুট্টার চাষ দিন দিন বাড়ছে। চলতি মরসুমে এ অঞ্চলের ৬ জেলায় মোট ৭৯ হাজার ৫শ’ ৬৬ হেক্টর জমিতে ভুট্টার চাষ হয়েছে। চাষ হওয়া জমিতে উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৬ লাখ ৯৫ হাজার ২শ’ ৪৮ মেট্রিক টন ভুট্টা। জেলাগুলো হচ্ছে যশোর, ঝিনাইদহ, মাগুরা, চুয়াডাঙ্গা, কুষ্টিয়া ও মেহেরপুর। এ ছয় জেলার মধ্যে সবচেয়ে চুয়াডাঙ্গা জেলায় বেশি জমিতে এবং মাগুরা জেলায় সবচেয়ে কম জমিতে ভুট্টার চাষ হয়েছে। এসব জমিতে ভুট্টার বাম্পার ফলনের সম্ভাবনার কথা জানালেন কৃষক ও কৃষি কর্মকর্তারা।
যশোর আঞ্চলিক কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক ড. সুনীল কুমার রায় জানান, যশোর অঞ্চলের ৬ জেলার কৃষকরা ভুট্টাকে অন্যতম প্রধান অর্থকরী ফসল মনে করেন। বিশেষ করে চুয়াডাঙ্গা জেলার কৃষকরা বোরো ধান চাষের চেয়ে ভুট্টা চাষকে বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকেন। ভুট্টায় তেমন একটা রোগ-বালাই হয় না। তাছাড়া ভুট্টা চাষে কৃষকদের আগ্রহ সৃষ্টির লক্ষ্যে প্রতিবছরের ন্যায় এবার প্রতি ভুট্টাচাষিকে বিনামূল্যে ২ কেজি বীজ, ২০ কেজি ডিএপি সার ও ৩০ কেজি এমওপি সার দেয়া হয়েছে। এ ৬ জেলার বিভিন্ন গ্রামে ভুট্টার প্রদর্শনী প্লট করা হয়েছে। অনুকূল আবহাওয়া থাকায় এবং কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে চাষিদের মাঝে সময়মতো কৃষি উপকরণ সরবরাহ করায় এ অঞ্চলে ভুট্টার বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা রয়েছে। কৃষি কর্মকর্তাদের নিয়মিত তদারকি এবং কৃষকদের আগ্রহে প্রতিবছর এ অঞ্চলে ভুট্টার আবাদ বাড়ছে বলে তিনি জানান।
ঝিনাইদহের কালিগঞ্জ কৃষি অফিসের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ কুমার সাহা জানান, চলতি মরসুমে এ উপজেলার প্রায় ২ হাজার ৫০ জন চাষি ভুট্টা চাষ করেছেন। গতবছর এ উপজেলায় মাত্র ১১০ হেক্টর জমিতে ভুট্টা হয়েছিলো। গত বছরের চেয়ে এ মরসুমে ২৪০ হেক্টর বেশি জমিতে ভুট্টার চাষ হয়েছে। খরচ কম ও উৎপাদন বেশি হওয়ায় এ উপজেলার চাষিদের মধ্যে ভুট্টা চাষ বৃদ্ধি পেয়েছে বলে তিনি জানান।
কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, চলতি মরসুমে চুয়াডাঙ্গা জেলায় ৪৯ হাজার ১শ’ ৭৫ হেক্টর জমিতে ৪ লাখ ২৯ হাজার ৬শ’ ৯১ মেট্রিকটন, ঝিনাইদহ জেলায় ১৩ হাজার ১শ’ ৩৪ হেক্টর জমিতে ১লাখ ১৪ হাজার ৭শ’ ৬৫ টন, কুষ্টিয়া জেলায় ৮ হাজার ৯শ’ ২২ হেক্টর জমিতে ৭৭ হাজার ৯শ’ ৬০ টন, মেহেরপুর জেলায় ৭ হাজার ৮শ’ ৫০ হেক্টর জমিতে ৬৮ হাজার ৫শ’ ৯৩ টন, যশোর জেলায় ৪শ’ ৬৫ হেক্টর জমিতে ৪ হাজার ৬৩ টন এবং মাগুরা জেলায় ২০ হেক্টর জমিতে ১শ’ ৭৫ মেট্রিকটন ভুট্টা চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।
চলতি মরসুমে এ অঞ্চলের কৃষকরা আগ্রহের সাথে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি জমিতে ভুট্টার চাষ সম্পন্ন করেছেন বলে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্রে জানা যায়। বেশ কয়েকজন কৃষক এ প্রতিনিধিকে জানান, ভুট্টা চাষে তেমন কোনো বেগ পেতে হয় না। ছোট খাটো প্রাকৃতিক দুর্যোগে ফসলহানির আশঙ্কাও তেমন থাকে না। যে কারণে কৃষকরা নিজ আগ্রহে প্রতিবছর ভুট্টার চাষ বাড়াচ্ছেন। কৃষি কর্মকর্তারা জানান, পশু খাদ্য ও মাছের অন্যতম প্রধান খাবার হিসেবে ভুট্টা ব্যবহৃত হয়ে থাকে। এ কারণে বাজারে ভুট্টার চাহিদাও ব্যাপক। দাম ভালো পাওয়ায় প্রতিবছর এ অঞ্চলের কৃষকরা আগ্রহ সহকারে বেশি বেশি জমিতে ভুট্টার চাষ করছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *