তিন মামলায়ই জামিন পেলেন এমপি রনি

 

স্টাফ রিপোর্টার: সাংবাদিক পেটানোর মামলাসহ পৃথক তিনটি মামলায় হাইকোর্ট থেকে জামিন পেয়েছেন পটুয়াখালী-৩ (গলাচিপা-দশমিনা) আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য গোলাম মওলা রনি। গতকাল মঙ্গলবার বিচারপতি নিজামুল হক নাসিম ও বিচারপতি কাশিফা হোসেনের অবকাশকালীন হাইকোর্ট বেঞ্চ পৃথক তিনটি আবেদনের শুনানি শেষে জামিন মঞ্জুর করেন।

জামিনের পাশাপাশি কেন এমপি রনিকে নিয়মিত জামিন দেয়া হবে না, তার কারণ জানতে চেয়ে রুল জারি করা হয়েছে। এ রুলের নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত তাঁর জামিন মঞ্জুর করা হয়েছে। জামিন আদেশের পর রনির আইনজীবীরা বলেন, তিনটি মামলাতেই জামিন হওয়ায় এখন আর তার মুক্তি পেতে বাধা নেই। আদালতে রনির পক্ষে শুনানিতে অংশ নেন অ্যাডভোকেট আবদুল বাসেত মজুমদার, ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল ও অ্যাডভোকেট তবারক হোসেন।

অনুসন্ধানী প্রতিবেদনের তথ্য সংগ্রহের জন্য গত ২০ জুলাই পল্টনে রনির কার্যালয়ে যান ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের সাংবাদিক ইমতিয়াজ মমিন সনি ও ক্যামেরাম্যান মহসিন মুকুল। তাদের অভিযোগ, এমপি রনি ও তার সহযোগীরা সেখানে তাদের মারধর করে। ঘটনার পর ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশন কর্তৃপক্ষ রনিকে আসামি করে শাহবাগ থানায় হত্যাচেষ্টার অভিযোগে একটি মামলা করে। পরদিন রনি নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন নেন। কিন্তু টেলিফোনে হুমকির অভিযোগে ইনডিপেনডেন্ট কর্তৃপক্ষ একটি জিডি করায় ২৪ জুলাই জামিন বাতিল করে তাকে গ্রেফতারের নির্দেশ দেন একই আদালত। ওই আদেশের পর গোয়েন্দা পুলিশ এমপি রনিকে গ্রেফতার করে আদালতে হাজির করলে হাকিম আদালত জামিন আবেদন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠান। হাকিম আদালতে জামিন না পেয়ে গত ২৮ জুলাই জজ আদালতের কাছে আবেদন করেন রনি। কিন্তু সেখানেও জামিন আবেদন খারিজ হওয়ার পর হাইকোর্টে জামিনের জন্য আবেদন করেন।

এদিকে হত্যাচেষ্টার মামলা চলতে থাকা অবস্থায় গত ১১ আগস্ট প্রাণনাশের হুমকি ও চাঁদা দাবির অভিযোগে পটুয়াখালীর গলাচিপা থানায় আরো দুটি মামলা হয় এমপি রনির বিরুদ্ধে। নিম্ন আদালতে এ দুটি মামলায়ও জামিন পাননি রনি। গতকাল হাইকোর্ট থেকে সব মামলাতেই জামিন পান তিনি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *