তিতুদহের গবরগাড়ায় কর্মসৃজন কাজে বাধা : চাঁদা না দেয়ায় কাজ বন্ধ

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার গবরগাড়া গ্রামে কর্মসৃজনের কাজ চলছে। গতকাল বুধবার সকালে কাজ চলাকালীন সালামতুল্লাহ ওরফে সালাম অনিয়মের অজুহাতে কাজে বাধা দেয়। এ নিয়ে শ্রমিকদের সাথে কথা কাটাকাটি শুরু হয় সালামের। টাকা না দিলে কাজ করতে দেয়া হবে না বলে হুমকি দেন তিনি। সালাম ও তার লোকজন টাকা না পেয়ে শ্রমিকদের লাঞ্ছিত করলে কাজ বন্ধ করে দেয় শ্রমিকরা। নবগঠিত গড়াইটুপি ইউনিয়নের কর্মসৃজনের বিভিন্ন প্রকল্পে ২৬৫ জন নারী-পুরুষ শ্রমিক কাজ করছে। এরই অংশ হিসেবে গবরগাড়া গ্রামের ২২ জন শ্রমিক তারিকের বাড়ির সামনের রাস্তায় মাটি কাটার কাজ করছিলো। এ সময় একই গ্রামের দিল মোহাম্মদের ছেলে সালামতুল্লাহ ওরফে সালাম ও তার সাঙ্গপাঙ্গ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে কাজে ত্রুটির অভিযোগ তুলে মোটা অঙ্কের চাঁদা দাবি করে বলে অভিযোগ করেছেন শ্রমিক মোজাম্মেল শিকদার, মসলেম হোসেন, ঠাণ্ডু হোসেন, আবদুর রাজ্জাক, রফিকুল ইসলাম, আয়াত আলী, আনিস আলী, হেকমত আলী, নাসির হোসেন, জসিম, মনির হোসেন ও আবদুল হক। সালাম ও তার লোকজন শ্রমিকদের অকথ্য ভাষায় গালাগালি ও মারমুখি আচরণ করে। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে শ্রমিকরা মাটি কাটা  বন্ধ করে ইউপি চেয়ারম্যান আক্তার হোসেনের কাছে ঘটনার বর্ণনা দেন। ইউনিয়নের ২৬৫ জন শ্রমিক একত্রিত হয়ে এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করেছেন। অন্যথায় আগামী শনিবার থেকে কর্মসৃজন কাজ বন্ধ রাখার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন শ্রমিকরা। এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান তিতুদহ ক্যাম্প পুলিশকে ঘটনাটি জানান।

পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ লিটন গাজি বলেছেন, ঘটনার মৌখিক অভিযোগ পেয়েছি। থানায় লিখিত অভিযোগ করা হলে সালামের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এদিকে সালামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মাটি কাটা কাজে যে অনিয়ম হচ্ছে তা সহ্য করার মতো না।

 

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *