ডাকাতির প্রস্তুতির কথা স্বীকারের পরও পুলিশে না দিয়ে আটক

 

দুজনকে ছেড়ে দেয়ায় পারলক্ষ্মীপুর গ্রামবাসীর মধ্যে ক্ষোভ

স্টাফ রিপোর্টার: আলমডাঙ্গার পল্লি পারলক্ষ্মীপুরের মাঠে গোপন বৈঠক করার সময় ধাওয়ার মুখে ধরাপড়া হাকিমপুরের রুবেল ও হাসিবুলকে শেষ পর্যন্ত ছেড়ে দেয়া হয়েছে। গতপরশু রাতে পুলিশি দেয়া হচ্ছে হবে বলে কাল বিলম্ব করে শেষ পর্যন্ত দুজনকেই ছেড়ে দেয়া হয়। আটকের পর ডাকাতির প্রস্তুতির কথা স্বীকার করার পরও ছেড়ে দেয়ায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন গ্রামের সাধারণ মানুষ।

স্থানীয়রা বলেছে, খাসকররা ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান রুন্নুর বাড়ির সামনেই পরশুরাতে আটকে রাখা হয় দুজনকে। চেয়ারম্যানের ভাই পুলিশে খবর দেয়া হয়েছে বলে জানালেও দীর্ঘ সময়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়নি। শেষ পর্যন্ত চেয়ারম্যানের ভাই নিজেই দুজনকে ছেড়ে দেয়। পরে জানা যায়, পুলিশে খবরই দেয়া হয়নি। মাঠ থেকে তাড়িয়ে ধরে পিটুনি দেয়ার পর পুলিশে না দিয়ে ছেড়ে দেয়ায় স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে।

গতপরশু রাতে পারলক্ষ্মীপুরের মাঠে একদল অস্ত্রধারী গোপনে বৈঠক করছে বলে খবর পেয়ে পারলক্ষ্মীপুরের জনতা সংগঠিত হয়ে ধাওয়া করে। হাতেনাতে ধরা পড়ে পার্শ্ববর্তী হাকিমপুরের ইউসুব আলীর ছেলে রুবেল ও  চান্দা আলীর ছেল হাসিবুল। এদেরকে পিটুনি দিয়ে নেয়া হয় পারলক্ষ্মীপুরস্থ চেয়ারম্যানের বাড়ির সামনের খোলায়। জিজ্ঞাসাদের সময় দুজনই ডাকাতির প্রস্তুতির কথা স্বীকার করে। অথচ গভীররাতে ছেড়ে দেয়া হয়। গতকাল পুলিশকে ভুল বোঝানো হয়েছে বলেও একাধিকসূত্র জানিয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *