টিউমার অপসারণ করে সুস্থতার বদলে মাস জুড়ে ভোগান্তি

রোগী ফাতেমার জীবনটাই এখন বিপন্ন হওয়ার আঙ্কায়

 

স্টাফ রিপোর্টার: সুস্থ হওয়ার জন্য ফাতেমার পেট থেকে টিউমার অপসারণ করে সুস্থতা দুরাস্ত, তার জীবনটাই এখন বিপন্ন হওয়ার পথে। মাসখানেক ভোগান্তির পর অবশেষে গতকাল সোমবার তীব্র যন্ত্রণা নিয়ে ফাতেমা চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

ফাতেমার (৩৫) স্বামী সৌরভ আলী দরিদ্র, ভাজা ফেরিওয়ালা। বাড়ি চুয়াডাঙ্গা জেলা সদরের শঙ্করচন্দ্র ইউনিয়নের ছয়ঘরিয়া গ্রামে। হাসপাতালে ভর্তির সময় ফাতেমা খাতুন ও তার দরিদ্র স্বামী অভিন্ন ভাষায় অভিযোগ তুলে বলেন, পেটে টিউমার হয়েছিলো। হাসপাতালেই অপারেশন করাবো বলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। গরু বিক্রির কিছু টাকা হাতে আসার পর তা দিয়ে ভালোভাবে অপারেশনের জন্য কয়েকজনের নিকট পরামর্শ নিতে শুরু করলাম। শেষ পর্যন্ত দেশ ক্লিনিকে ভর্তি করানো হলো। সাড়ে ৫ হাজার টাকার বিনিময়ে অপারেশন করানো হলো। ডা. হোসনে জারী তহমিনা আঁখি অপারেশন করলেন। ৫দিন পর রোগী ফাতেমা খাতুনকে বাড়ি যেতে বললো। তখনও যন্ত্রণা ছিলো। বাড়ি ফিরে মাঝে মাঝে ড্রেসিং করাতে ক্লিনিকে আনতে বলা হলো। কথামতো ডেসিং করানো হলো। কাড়ি কাড়ি টাকার ওষুধ গেলো। কিছুতেই কিছু হলো না, কশানি তো ঝরছেই, জ্বর আর যাচ্ছে না। যন্ত্রণা বাড়ছেই। শেষ পর্যন্ত উপায় না পেয়ে হাসপাতালে আসতে হলো।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *