ঝিনাইদহ জেলখানায় মারামারির পর কয়েদির মৃত্যু

স্টাফ রিপোর্টার: ঝিনাইদহ জেলখানায় দুই কয়েদির মারামারির পর আহত একজন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল পৌনে ৪টায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয় বলে জানান ঝিনাইদহ জেলসুপার মো. গোলাম হোসেন। নিহত রেজাউল ইসলাম (৪২) শৈলকুপা উপজেলার ছোট মৌকুড়ি গ্রামের ওয়াদুদ বিশ্বাসের ছেলে।

জেলসুপার বলেন, রেজাউল ১৯৯৯ সালের ১৯ অক্টোবর একটি হত্যা মামলায় গ্রেফতার হয়ে জেলে ছিলেন। তার বিচার চলছিলো। এরই মধ্যে সোমবার নারী ও শিশুনির্যাতন দমন আইনের এক মামলায় জেলে যান শহিদুল ইসলাম। দুইজনের মধ্যে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে সংঘর্ষে রেজাউল আহত হন। রেজাউলকে প্রথমে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তির পর অবস্থার অবনতি হওয়ায় খুলনায় পাঠানো হয় বলে জানান জেলসুপার গোলাম হোসেন। তিনি বলেন, খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকেলে মারা যান রেজাউল।

তিনি আরও জানান, গত ৫ সেপ্টেম্বর ঝিনাইদহ জেলা কারাগারে হত্যা মামলার আসামি রেজাউল করিম ও অন্য এক আসামির মধ্যে মারামারি হয়। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। তাকে প্রথমে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ও পরে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *