ঝিনাইদহ কালীগঞ্জের কিশোরীকে মাগুরায় নিয়ে ধর্ষণের পর হত্যা : গমক্ষেতে লাশ

 

স্টাফ রিপোর্টার: মাগুরার শালিখা থেকে আখি খাতুন নামে এক কিশোরীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এলাকাবাসীর খবরের ভিত্তিতে শালিখা থানা পুলিশ গতকাল শুক্রবার দুপুরে গঙ্গারামপুর ইউনিয়নের গজনগর গ্রামের একটি গমক্ষেত থেকে ওই কিশোরীর লাশ উদ্ধার করে।

পুলিশ বলছে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে তাকে হত্যা করা হয়েছে। ওই কিশোরী ঝিনাইদহের কালিগঞ্জ উপজেলার হাসানকাঠি গ্রামের মোয়াজ্জেম হোসেনের মেয়ে।

শালিখা থানার ওসি আবু জিহাদ ফকরুল ইসলাম খান জানান, ছবি তোলার জন্য গত বৃহস্পতিবার সকালে চাচা মনিরুল ইসলামের সাথে ঝিনাইদহ শহরের কনিকা কালার ল্যাব  স্টুডিওতে আসে আখি (১১)। সেখান থেকে কৌশলে চাচার পরিচিত যশোরের চুড়ামনকাঠির  জুয়েল নামে এক যুবক তাকে অপহরণ করে। পরে অনেক খোঁজাখুজির পর আখিকে না পেয়ে তার পরিবারের লোকজন বিকেলে ঝিনাইদহ সদর থানায় একটি জিডি করে।

এক পর্যায়ে মোবাইলফোনে তার পরিবারের কাছে ২০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে অপহরণকারীরা। মোবাইলফোনের সূত্র ধরে প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে ঝিনাইদহ থানা পুলিশ নড়াইল-মাগুরা জেলার সীমান্ত এলাকা শালিখা উপজেলার গঙ্গারামপুর এলাকায় অপহরণকারীদের অবস্থান শনাক্ত করে। যে বিষয়টি শালিখা থানা পুলিশকে জানালে শুক্রবার দুপুরে গজনগর গ্রামের একটি গমক্ষেত থেকে আখির লাশ উদ্ধার করে। প্রাথমিক আলামতের সূত্র ধরে পুলিশ বলছে দুর্বৃত্তরা ধর্ষণের পর তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার হয়নি। এ ব্যাপারে ঝিনাইদহ সদর থানায় মামলা প্রক্রিয়াধীন বলে জানিয়েছে শালিখা থানা পুলিশ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *