ঝিনাইদহের বারোবাজার রেলওয়ের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের জন্য পরিদর্শন

 

ঝিনাইদহ অফিস: ঝিনাইদহের কালীগঞ্জের বারোবাজারে ট্রেন ও বিয়ের বাস দুর্ঘটনার দু সপ্তাহ পর গতকাল বুধবার একটি বিশেষ দল অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের জন্য দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার, বাংলাদেশ রেলওয়ে জেনারেল পরিদর্শন অফিসার আক্তারুজ্জামান হায়দার, পশ্চিম জোনের ডিটিও শফিকুল ইসলাম, বাণিজ্যিক অফিসার সুজিত কুমার, সংকেত প্রকৌশলী মিজানুর রহমান ও মনোয়ারুল ইসলাম।

কর্মকর্তারা জানান, বারোবাজার রেলগেটের পশ্চিম পাশে রেলওয়ের ১শ ফিট জায়গা, এবং উল্টো পাশে ৩শ ফিট জায়গা রয়েছে। লাইনের দুপাশে ৭১টি স্থাপনা রয়েছে, তার মধ্যে রেলওয়ের নিকট থেকে ডিসিআর কেটে অনুমোদন নিয়েছে ৩১টি। অপর ৪০টি বিনা অনুমতিতে অবৈধভাবে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছে। ২০১০ সালের ৩ নভেম্বর উচ্ছেদ অভিযান চালিয়ে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। অল্প কয়েকদিন পর পুনরায় ব্যবসায়ীরা আবার ও নতুন করে দখল করে নেয় ও অবৈধ স্থাপনা গড়ে তোলে। এরপর ২০১৩ সালের ২৯ ডিসেম্বর উচ্ছেদের অভিযান চালানোর কথা থাকলেও রহস্যজনক কারণে তা করা হয়নি।

বুধবার ব্যবসায়ীরা সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার ও রেল কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে অবৈধ স্থাপনা তুলে নেয়ার জন্য একমত পোষণ করেন এবং তারা ১ বছর সময় চেয়ে নেয়।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *