ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে অনৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার সময় এক ইউপি চেয়ারম্যান জনতার হাতে আটক

No Image

ঝিনাইদহ অফিস: ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে অনৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার সময় এক ইউপি চেয়ারম্যানকে আটক করেছে জনতা। গত শুক্রবার রাত ১২টার দিকে উপজেলার বারোবাজার জননী আছিয়া প্রাইভেট হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে। আটক গোলাম রসুল কালীগঞ্জ উপজেলার শিমলা রোকনপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান।

স্থানীয় লোকজন জানান, কয়েক বছর আগে কালীগঞ্জ উপজেলা থেকে আসমা নামে ১৫ বছর বয়সী এক কিশোরী হারিয়ে যায়। গত ৪ বছর ধরে মেয়েটি ঢাকার মোহাম্মদপুরে ‘অপরাজিত বাংলাদেশ’ নামে একটি বেসরকারি সংস্থার শেল্টার হোমে ছিলো। তার পিতার নাম জাহাঙ্গীর হোসেন ছাড়া কিছুই বলতে পারে না। মেয়েটিকে সাথে করে শুক্রবার ওই সংস্থার কর্মকর্তা রাহেনা বেগমসহ কয়েকজন কালীগঞ্জে আসে। এ নিয়ে শুক্রবার স্থানীয় একটি পত্রিকায় বিজ্ঞাপন প্রকাশিত হয়। তবে মেয়েটির সঠিক পরিচয় জানতে ব্যর্থ হয় তারা।

শুক্রবার রাত ১২টার দিকে কালীগঞ্জের বারোবাজারে জামাত আলীর মালিকানাধীন জননী আছিয়া প্রাইভেট হাসপাতালে সংস্থার কর্মকর্তা রাহেলা বেগমের সাথে অনৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার সময় আপত্তিকর অবস্থায় চেয়ারম্যান গোলাম রসুলকে হাতেনাতে আটক করে বাজারের ব্যবসায়ীরা। পরে উত্তমমাধ্যম দিয়ে রাতেই ইউপি চেয়ারম্যানকে স্থানীয় বারোবাজার পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই মোখলেছুর রহমান ও কালীগঞ্জ থানার ওসি লিয়াকত আলীর হাতে তুলে দেয় জনতা।

এ বিষয়ে কালীগঞ্জ থানার ওসি লিয়াকত আলী বলেন, রাত ১১টার দিকে চেয়ারম্যান ও এনজিও কর্মকর্তা ক্লিনিকের একটি কক্ষে বসে গল্প করছিলো। পরে স্থানীয় জনতা তাদের আটক করে। খবর পেয়ে পুলিশ চেয়ারম্যানকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে। তবে ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম রসুল এ ঘটনা সত্য নয় দাবি করে বলেন, এটি তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার। একটি মহল তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে এমন মনগড়া কথা বলছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *