জীবননগর আদর্শ মহিলা ডিগ্রি কলেজসহ জাতীয়করণের জন্য চূড়ান্ত ২৮৫ কলেজ

 

স্টাফ রিপোর্টার: জাতীয়করণের জন্য চুয়াডাঙ্গার জীবননগর আদর্শ মহিলা ডিগ্রি কলেজ ও ঝিনাইদহ কালীগঞ্জের মাহাতাব উদ্দীন কলেজসহ ২৮৫ কলেজের নাম চূড়ান্ত করা হয়েছে। এ লক্ষ্যে এসব কলেজের সব স্থাবর ও অস্থাবর সম্পত্তির দানপত্র দলিল সরকারের কাছে হস্তান্তরের নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। ওই নির্দেশনা বাস্তবায়নের জন্য মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি), বিভিন্ন জেলা প্রশাসক এবং সংশ্লিষ্ট কলেজের অধ্যক্ষের কাছে বৃহস্পতিবার চিঠি পাঠানো হয়েছে।

মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ওইসব প্রতিষ্ঠানের স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি বর্তমানে কলেজের নামে আছে। কোনো প্রতিষ্ঠান সরকারি হতে হলে তার সম্পদ সরকার বা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিবের নামে থাকে। এক্ষেত্রেও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিবের নামে সম্পদের দানপত্র দলিল হস্তান্তর করতে হবে। এ প্রসঙ্গে মাউশি পরিচালক অধ্যাপক শামসুল হুদা বলেন, মন্ত্রণালয়ের চিঠি আমরা বৃহস্পতিবার শেষ বিকেলে পেয়েছি। সে কারণে ওইদিন ব্যবস্থা নিতে পারিনি। গতকাল রোববার তা সংশ্লিষ্ট কলেজগুলোতে পাঠানো হয়েছে। বর্তমানে দেশে সরকারি স্কুল ও কলেজ আছে যথাক্রমে ৩৩০ ও ৩৩৫। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ২০১৫ সালের একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, সরকারি স্কুল ও কলেজ নেই দেশে এমন উপজেলা যথাক্রমে ৩২১ এবং ৪৪৬টি।

ওই প্রতিবেদন অনুযায়ী, কয়েক দফায় ২৯৬টি কলেজ ও ১২৩টি হাইস্কুল সরকারি করার ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী নীতিগত সিদ্ধান্ত দেন। অবশ্য এরমধ্যে ৫টি কলেজ এবং ৭টি হাইস্কুলের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত পরবর্তীতে স্থগিত করা হয়। সে হিসেবে ২৯১টি কলেজ ও ১১৬টি হাইস্কুলের পরিদর্শনের নির্দেশনা পায় মাউশি। এর মধ্যে ২৭৬টি কলেজ ও ৪৮টি হাইস্কুলের ব্যয় নির্বাহের জন্য অর্থ মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠানো হয়। কিন্তু অর্থ মন্ত্রণালয় প্রতি অর্থবছর সর্বোচ্চ ১০০ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চূড়ান্তভাবে সরকারি করার ব্যাপারে সম্মতি দিয়েছে। এ কারণে নতুন করে প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ প্রক্রিয়া ঝুলে গেছে। তবে এ অবস্থার মধ্যেও শিক্ষা মন্ত্রণালয় জাতীয়করণের কাজ এগিয়ে নিতে চাচ্ছে বলে মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *