জিয়ার খুনি কে আমি জানি: এরশাদ

 

স্টাফ রিপোর্টার:সাবেকরাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, আমিজানি জিয়ার খুনি কে। দেশবাসী জানে, জিয়ার খুনি কে। জিয়া যখন খুন হন তখন তারপাশের কক্ষে কে ছিলেন। ২০ বছর তো তার সঙ্গেই রাজনীতি করেছেন। কই তখন তোতার বিচার চাননি। গতকাল শনিবার রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশনমিলনায়তনে জাতীয়যুব সংহতির সাধারণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে হুসেইনমুহম্মদ এরশাদ এসব কথা বলেন।বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উদ্দেশেএরশাদ বলেন, তিনি (খালেদা জিয়া) বলেন, আমি নাকি জিয়ার খুনি। জিয়ার খুনেরসময় বিচারপতি সাত্তার ক্ষমতায় ছিলেন। মঞ্জুরকে ধরতে পারলে ৫ লাখ টাকাপুরস্কার ঘোষণা করেছিলেন। বিদ্রোহ দমনের জন্য আমাকে ধন্যবাদ দিয়েছিলেন।এরপর তিনি (খালেদা জিয়া) দু দফায় ক্ষমতায় ছিলেন। আমাকে জেলে ঢুকিয়েছেন।জেলখানায় হত্যা করতে চেয়েছেন। তখন তিনি কেনো আমার বিচার করলেন না। এখন আমাকেবলছেন খুনি। আসলে বিএনপির রাজনীতি বলতে কিছুই নেই। সরকারে, রাজপথে ওসংসদে- কোথাও তারা নেই। তাদের কোনোও ভবিষ্যৎও নেই। সরকার পরিবর্তনের ক্ষমতানেই। তাই এখন তিনি জিয়া হত্যাকাণ্ড নিয়ে ব্লেম গেম খেলছেন।

এ সময়সরকারেরও কঠোর সমালোচনা করে এরশাদ বলেন, মুসোলিনি ও হিটলারের মতো দেশচালাচ্ছে সরকার। সাংবিধানিক ধারাবাহিকতার কথা বলে নির্বাচন করলেও দেশে এখনকোনোও গণতন্ত্র নেই। সাংবিধানিক ন্যূনতম অধিকার নেই। কারও জীবনের নিরাপত্তানেই। গণতন্ত্র মানে কী- তা জানার অধিকার থেকেও সরকার জনগণকে বঞ্চিত করেছে।এরশাদআরও বলেন, দেশে এখন একটি কঠিন প্রেক্ষাপট চলছে। গণতন্ত্র সংবিধানের কথাআমরা শুনি, কিন্তু কোথায় গণতন্ত্র?কোথায় সংবিধান?মানুষ শান্তিতে ঘুমাতেপারে না। নদীতে লাশ ভেসে ওঠে। গণতন্ত্র শুধু মুখে আছে বাস্তবে নেই। মানুষশান্তিতে ঘুমাতে পারে না। এটা কেমন দেশ। এরশাদ দাবি করেন, নারায়ণগঞ্জেরঘটনায় কারা জড়িত সরকার তা জানে। মানুষ এখন বাঁচার অধিকার থেকে বঞ্চিত।সরকার বাঁচার অধিকার নিশ্চিত করতে ব্যর্থ হয়েছে। কোনো কিছু ঘটলে একে অপরেরবিরুদ্ধে দোষারোপ করা হচ্ছে। কিন্তু যে কোনো পরিস্থিতি সামলানোর দায়িত্বযার, সেই সরকারই দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হচ্ছে।সভায় এরশাদ আস্থার সাথেবলেন, বিএনপি ব্যর্থ। আওয়ামী লীগেরও দিন দিন জনপ্রিয়তা কমছে। এখন জাতীয়পার্টিই জনগণের একমাত্র ভরসার জায়গা। জাতীয় পার্টিতে প্রাণ ফিরে এসেছে। তাইসামনে এগোতে হবে। পেছনে তাকানোর আর সুযোগ নেই। তিনি আরও বলেন, আমার সময়খুন-গুম-অপহরণ ছিলো না। আর এখন খুন করেও পার পেয়ে যাচ্ছে। প্রতিদিন খাবারেরসাথে মানুষ বিষ খাচ্ছে। কোনো ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না। খাদ্যে ভেজাল, ওষুধেভেজাল। বিবেক বলে কিছু নেই এখন। সবাই শুধু টাকা চেনে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *