জাতিসংঘের হস্তক্ষেপ চান বাশার

মাথাভাঙ্গা মনিটর: যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা দেশগুলোর হামলার হুমকির মুখে এবার জাতিসংঘের হস্তক্ষেপ কামনা করলেন সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের সরকার। সোমবার দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা জানায়, যেকোনো ধরনের আগ্রাসন প্রতিরোধে জাতিসংঘের মহাসচিবকে দায়িত্ব নেয়ার আহ্বান জানাচ্ছে সিরিয়ার সরকার। সিরিয়া সরকার জাতিসংঘের হস্তক্ষেপকে নিরাপদ মনে করছে। জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ সিরিয়ার ওপর ‍সামরিক হামলা চালানোর অনুমোদন না দেয়‍ার সম্ভাবনাই বেশি কেননা পরিষদের দু সদস্য চীন ও রাশিয়া তাদের মিত্র সিরিয়ার বিরুদ্ধে যেকোনো ধরনের পদক্ষেপের তীব্র বিরোধী। গতকাল সোমবার সিরিয়ার সংবাদ সংস্থা জানিয়েছে, জাতিসংঘে নিযুক্ত সিরিয়া দূত বাশার জাফরি জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মুন ও নিরাপত্তা পরিষদের প্রেসিডেন্ট মারিয়া ক্রিস্টিনা পারসিভালের কাছে মার্কিন হামলা থামাতে জাতিসংঘের হস্তক্ষেপ কামনা করে একটি চিঠি দিয়েছেন। প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের পক্ষে ওই চিঠিতে বাশার জাফরি লিখেছেন, সিরিয়ার ওপর কোনো ধরনের আগ্রাসন প্রতিরোধে এবং সিরিয়া সংকটের রাজনৈতিক সমাধান বের করতে জাতিসংঘের মহাসচিবের এগিয়ে আসা উচিত। আন্তর্জাতিক বৈধতা লঙ্ঘন করে শক্তির অপব্যবহার রোধে নিরাপদ ঢাল হিসেবে দায়িত্ব পালন করার জন্য জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। তিনি আরও বলেছেন, শান্তির পৃষ্ঠপোষক হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের দায়িত্ব পালন করা উচিত। কোনো দেশ যুক্তরাষ্ট্রের নীতির বিরোধিতা করলে সেদেশের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের হামলা চালানো উচিত নয় বলেও চিঠিতে উল্লেখ করেছেন জাফরি। সিরিয়ার সরকার বিরোধীদের ওপর রাসায়নিক অস্ত্র হামলা চালিয়েছে-এমন ‍অভিযোগে দেশটিতে হামলা চালানোর হুমকি দেয় যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রের সাথে হামলা অংশ নেয়ার কথা জানান যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন। কিন্তু পার্লামেন্টে সিরিয়ায় হামলার প্রস্তাব নাকচ হলে পিছিয়ে আসেন ক্যামেরন। তবে যুক্তরাজ্য পিছিয়ে এলেও ফ্রান্স সিরিয়ায় সামরিক হস্তক্ষেপের পক্ষে নিজেদের অবস্থান ব্যক্ত করেছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *