চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে আলোচনাসভায় বক্তারা

এ সরকারের অধীনে সাজানো নির্বাচনে বিএনপি অংশ নেবে না

 

মাথাভাঙ্গা ডেস্ক: চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুর ও ঝিনাইদহসহ সারাদেশে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ৬ষ্ঠ কারা মুক্তিদিবস বিএনপি নেতাকর্মীরা মিছিল ও সমাবেশ করেন। এ সময় র‌্যালি ও আলোচনাসভা করা হয়। ঝিনাইদহের শৈলকুপায় বিএনপির মিছিলে পুলিশ বাধা দেয়। এ সময় পুলিশের ধাওয়ায় পাঁচ নেতাকর্মী আহত হন।

চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির উদ্যোগে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ৬ষ্ঠ কারা মুক্তিদিবস উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গা শহরে মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল বেলা ১১টায় বিএনপির দলীয় কার্যালয় থেকে মিছিলটি বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তারা বলেন, পাঁচ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ পরাজিত হয়েছে। আর যাতে পরাজিত না হতে হয় সেই কারণে শেখ হাসিনা নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে ভয় পাচ্ছে। আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রে বিশ্বাসী নয়। তার সরকার জনগণের জন্য ভালো কাজ করে থাকলে জনগণই আবার ভোট দিয়ে ক্ষমতায় নিয়ে আসবে কিন্তু সেই সৎ সাহস এ সরকারের নেই কারণ ওনারা ভালো কাজ করেননি বলেই জনগণের আস্থা ইতোমধ্যেই হারিয়েছেন। এ সরকারের অধীনে সাজানো নির্বাচনে বিএনপির নেতৃতাধীন ১৮ দলীয় জোট অংশ নেবে না এবং নির্বাচন ও করতে দেবে না। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন জেলা বিএনপির সহসভাপতি এম জেনারেল ইসলাম। প্রধান বক্তা ছিলেন জেলা বিএনপির যুগ্মসম্পাদক অ্যাড. ওয়াহেদুজ্জামান বুলা। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক অ্যাড. আ.স.ম আব্দুর রউফ, সদর থানা বিএনপির সভাপতি অ্যাড. শামীম রেজা ডালিম, সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর মন্টু, সদর পৌর বিএনপির সভাপতি শহিদুল ইসলাম রতন, সাধারণ সম্পাদক মজিবুল হক মালিক মজু, আলমডাঙ্গা থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শেখ সাইফুল ইসলাম, আলমডাঙ্গা পৌর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ইসরাফ আলী। বক্তব্য রাখেন- কেন্দ্রীয় যুবদলের নেতা এমদাদুল হক ডাবু, থানা বিএনপির নেতা এমএ সাইদ, মনিরুজ্জামান মনি, মোমিন মাস্টার, সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল জব্বার, বিএনপি নেতা নাসির উদ্দিন শান্তি, পৌর বিএনপির নেতা অ্যাড. মইনুল হোসেন, রবিউল ইসলাম লিটন, আহসান হাবীব মুক্তিসহ বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

জেলা বিএনপির একাংশের আয়োজনে বিকেল সাড়ে চারটায় কেদারগঞ্জস্থ জেলা বিএনপির কার্যালয় প্রাঙ্গণে সমাবেশের আয়োজন করা হয়। পৌর বিএনপির সভাপতি সিরাজুল ইসলাম মনির সভাপতিত্ব সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা বিএনপির সহসভাপতি সদর থানা বিএনপির সভাপতি অ্যাড. এমএম শাহাজাহান মুকুল। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা বিএনপির যুগ্মসম্পাদক মাহমুদুল হক পল্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক রউফুন নাহার রীনা, দফতর সম্পাদক আবু আলা সামছুজ্জামান, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. হেদায়েত হোসেন আসলাম, পৌর বিএনপির সহসভাপতি মুন্সি আওরঙ্গজেব বেল্টু, অ্যাড. মনি খন্দকার, থানা বিএনপির সহসাংগঠনিক মিজানুর রহমান মিজান, জেলা ছাত্রদলের যুগ্মআহ্বায়ক শাহাজাহান খান, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক হাজী আব্দুল মান্নান, যুগ্মআহ্বায়ক একরামুল হক, শেখ মিনহাজ উদ্দিন প্রমুখ।

চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির অর্থবিষয়ক সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর আলমের নেতৃত্বে দিবস পালন করা হয়। কেন্দ্রীয় মৎস্যজীবীদলের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক জেলা মৎস্যজীবী সভাপতি মো. আবু বক্কর সিদ্দিক বকুলের সর্বিক তত্ত্বাবধানে বিশাল বর্ণাঢ্য র‌্যালি কোর্টমোড়স্থ অস্থায়ী জেলা বিএনপির কার্যালয় সংলগ্ন ১ নং পানির ট্যাংক থেকে র‌্যালি শুরু করে শহরের প্রধান প্রধান শড়ক প্রদক্ষিণ শেষ শহীদ হাসান চত্বরে সমাবেশ অনুষ্ঠত হয়। সভাপতিত্ব করেন সাবেক সংসদ সদস্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হবি। প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা বিএনপির অর্থবিষয়ক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, বিশেষ অতিথি ছিলেন- জেলা মৎস্যজীবী দলের সহসভাপতি আরশেদ আলী কালু, জেলা কৃষকদল নেতা হামিদুল হক নেতাজী, জেলা মৎস্যজীবী দলের সধারণ সম্পাদক কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ওহিদুল ইসলাম ওহিদ, জেলা তৃণমূল দলের আহ্বায়ক আবু বক্কর সিদ্দিক আবু, থানা বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি মনিরুজ্জামান মনি, পৌর বিএনপির যুগ্মসাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, জেলা বিএনপির সদস্য আবুল খালেক, আলমডাঙ্গা থানা মৎস্যজীবী দলের আহ্বায়ক মশিউর রহমান বাবু প্রমুখ।

আলমডাঙ্গা ব্যুরো জানিয়েছে, গতকাল বুধবার বিকেলে আলমডাঙ্গা উপজেলা ও পৌর বিএনপির উদ্যোগে ৬ষ্ঠ কারামুক্ত দিবস উপলক্ষে দলীয় কার্যালয়ে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। পৌর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ইসরাফ হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শেখ সাইফুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল জব্বার, কেন্দ্রীয় যুবদলের সদস্য উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক এমদাদুল হক ডাবু, উপজেলা কৃষকদলের সাধারণ সম্পাদক বোরহান উদ্দিন, উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেনের সঞ্চলনায় বক্তব্য রাখেন- হারদী ইউপি বিএনপির সভাপতি মহিনুল ইসলাম, জামজামি ইউপির সভাপতি আব্দুল লতিফ তোতা, ডাউকি ইউপির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হান্নান, উপজেলা বিএনপির স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মহি উদ্দিন, কৃষক দল নেতা শওকত খান, উপজেলা যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক মাগরিবুর রহমান, অহিদুল ইসলাম বাবু, গোলাম হোসেন, পৌর যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল কাদের, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক বাকী বিল্লাহ, গোলাম বিশ্বাস, মিলন দাস, জেলা ছাত্রদলের যুগ্মআহ্বায়ক তৌফিক খান, সদস্য সৈয়দ লিমন, ছাত্রদল নেতা রহিদ, রানা, আলা, শওকত ওসমান, বাপ্পী, সজীব, সাগর, উজ্জল, শান্ত, মামুন, সুইট, ফাহিম, রকিব, নয়ন, সাদ্দাম, সাহাবুল, রুবেল, রাশেদ প্রমুখ।

দর্শনা অফিস জানিয়েছে, দর্শনায় ৬ষ্ঠ কারামুক্ত দিবস দর্শনায় পালিত হয়েছে। (বিএনপি নেতা ইঞ্জিনিয়ার মোখলেসুর রহমান তরফদার টিপু সমর্থিত) দর্শনা পৌর বিএনপির একাংশের আয়োজনে গতকাল বুধবার বিকেলে প্রয়াত বিএনপি নেতা আক্তারুল ইসলামের গতিঘর চত্বরে অনুষ্ঠিত হয়েছে আলোচনাসভা। পৌর বিএনপির সভাপতি রহম আলীর সভাপতিত্বে সভায় আলোচনা করেন- দামুড়হুদা উপজেলা বিএনপির একাংশের সভাপতি খাজা আবুল হাসনাত, দর্শনা পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল ইসলাম খোকন, ইউপি চেয়ারম্যান ইদ্রিস আলী, বিএনপি নেতা ফজলুল হক, আব্দুল হাই, জিন্নাত আলী, আজিজুল হক, আশরাফ, বিপ্লব, আমিরুল, সিদ্দিক, নাসির, জহিরুল প্রমুখ।

মেহেরপুর অফিস জানিয়েছে, গতকাল বুধবার বেলা ১১টায় মেহেরপুর ৬ষ্ঠ কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। পৌর বিএনপির সভাপতি জাহাঙ্গীর বিশ্বাসের সভাপতিত্বে সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন- বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সাবেক এমপি মাসুদ অরুন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাসুদ অরুন বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বারবার আহ্বান সত্ত্বেও যদি বর্তমান সরকার নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে জাতীয় সংসদের নির্বাচন অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা না করে তবে দেশে কোনো নির্বাচন হতে দেয়া হবে না। সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন- জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মুজিবনগর উপজেলা চেয়ারম্যান আমিরুল ইসলাম, সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আমঝুপি ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম, মুজিবনগর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদরুদ্দিন বিশ্বাস, পৌর বিএনপির প্রচার সম্পাদক হাবিব ইকবাল, জেলা শ্রমিকদলের আহ্বায়ক আহসান হাবিব সোনা, জেলা স্বেচ্ছা সেবকদলের যুগ্ম আহ্বায়ক আজিম উদ্দীন গাজী, জেলা ছাত্রদল নেতা সোহেল হোসেন ও আহমেদ রাজীব খান প্রমুখ।

গাংনী প্রতিনিধি জানিয়েছেন, কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে মেহেরপুর গাংনীতে আলোচনাসভা করেছে ছাত্রদল। গতকাল বুধবার সকাল ১০টার  দিকে জেলা বিএনপির সহসভাপতি জাভেদ মাসুদ মিল্টনের গাংনী কার্যালয়ে এ আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। সভাপতিত্ব করেন উপজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক কাউছার আলী। প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা যুবদলের সাবেক আহ্বায়ক মুরাদ আলী। বক্তব্য রাখেন- ছাত্রদল নেতা চপল বিশ্বাস, শাহিবুল, সেলিম প্রমুখ। উপস্থিত ছিলেন- উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জুলফিকার আলী ভুট্টো, উপজেলা বিএনপি সাংগঠনিক সম্পাদক বামন্দী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল আওয়াল, পৌর জিয়া পরিষদের সভাপতি আহসান হাবিব বাবু, উপজেলা শ্রমিকদলের সভাপতি গিয়াস উদ্দীন, উপজেরা যুবদল নেতা আব্দুল ওহাব বুলবুল, সোহরাব হোসেন,  ছাত্রদল নেতা কামু, আবির, জসিম, ইকরামূল ও হাসের।

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, ঝিনাইদহে গতকাল বুধবার দুপুর ১২টার দিকে শহরের ওয়াজির আলী হাইস্কুল মাঠ থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে পোস্টঅফিস মোড়ে সমাবেশে মিলিত হয়। সমাবেশে বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মসিউর রহমান প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন। উপস্থিত ছিলেন- বিএনপি নেতা অ্যাড. এমএ মজিদ, জাহিদুজ্জামান মনা, কেএম ওয়াজেদ, আক্তারুজ্জামান আব্দুল আলীম, আব্দুল মজিদ বিশ্বাস, আশরাফুল ইসলাম পিন্টু, আহসান হাবীব রনক প্রমুখ।

এদিকে ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডু উপজেলায় দিবসটি পালনে বুধবার প্রিয়নাথ স্কুলমাঠে বিএনপি নেতা আবুল হোসেনের সভাপতিত্বে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে জেলা বিএনপির যুগ্মসম্পাদক অ্যাড. এমএ মজিদ, জিন্নাতুল হক, মোজোম্মেল হক, আনিসুর রহমান প্রমুখ।

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় খালেদা জিয়ার কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশ পুলিশি বাধায় পণ্ড হয়ে গেছে। শহরের কবিরপুর ডাল মিল সংলগ্ন মাঠে গতকাল বুধবার সকাল ১০টার দিকে এ সমাবেশ হওয়ার কথা ছিলো। সকাল ন’টার দিকে বিএনপি কর্মীরা মঞ্চের সামনে জড়ো হতে থাকলে পুলিশ বাধা দেয়। এ সময় লাঠিসোটা নিয়ে কর্মীদের ধাওয়া করে এবং গ্রেফতারের হুমকি দেয়। মিছিল করতে দেয়া হয়নি বলেও কর্মীরা অভিযোগ করেছেন। পুলিশের ধাওয়ায় রিপন, ডাবুল, সুমন, আলমগীর ও তাহের নামে পাঁচকর্মী আহত হন।

শৈলকুপা উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল হাসান খান দিপু জানান, বিএনপি চেয়ারপাসন বেগম খালেদা জিয়ার ৬ষ্ঠ কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে সমাবেশসহ বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছিলো শৈলকুপা উপজেলা বিএনপি। কিন্তু পুলিশ সমাবেশসহ কোনো কর্মসূচি পালন করতে দেয়নি। তিনি অভিযোগ করে বলেন, সরকারি দলের মদদে তাদের কর্মসূচিতে অঘোষিত ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। ১৪৪ ধারা জারি ছাড়া সভা-সমাবেশ করতে না দেয়া অগণতান্ত্রিক বলে তিনি মন্তব্য করেন। এদিকে শৈলকুপা থানার ওসি আনোয়ার হোসেন জানান, তাদের সমাবেশে বাধা দেয়া হয়নি। তবে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পুলিশকে সতর্ক রাখা হয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *