চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুর ও ঝিনাইদহের বিভিন্ন স্থানে ঈদ পুনর্মিলনি অনুষ্ঠিত

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গা সরকারি শিশু পরিবারের ১০০ এতিম শিশুর সাথে ঈদের খুশি ভাগাভাগি করে নিলেন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ-৬ বিজিবি ব্যাটালিয়নের কর্মকর্তারা। গত মঙ্গলবার দুপুরে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গা সরকারি শিশু পরিবারের সকল শিশুর জন্য দুপুরের খাবারের আয়োজন করেন এবং একসাথে খাবার খান।

বিজিবির পক্ষে এসময় চুয়াডাঙ্গা-৬ ব্যাটলিয়নের পরিচালক লে.কর্নেল এসএম মনিরুজ্জামান, অতিরিক্ত পরিচালক মেজর আনোয়ার জাহিদ, উপসহকারী পরিচালক (ডিএডি) সোহরাব হোসেন এবং সরকারি শিশু পরিবারের ভারপ্রাপ্ত তত্ত্বাবধায়ক আবু নাসির, সহকারী তত্ত্বাবধায়ক ইলিয়াস হোসেন, সহকারী শিক্ষক আকতারী বেগম, কারিগরি প্রশিক্ষক লুৎফুন নাহার ও অফিস সহকারী জাহাঙ্গীর হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

সরোজগঞ্জ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, চুয়াডাঙ্গা ছয়ঘরিয়া চাকরিজীবী সেবা সংঘের উদ্যোগে ঈদ পুনর্মিলনি ও অসহায় হত দরিদ্রদের মাঝে অনুদান প্রদান করা হয়। গত বুধবার সকাল সাড়ে ৯টায় ছয়ঘরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে সরোজগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক শওকত আলীর সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন সমাজসেবক সামসুল হক,ডা. এমএ রশিদ,ডা. শামিম কবির,ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. মিজানুর রহমান,সাব রেজিস্টার আব্দুল হাফিজ বকুল,নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শাহানাজ পারভীন,অত্র কমিটির সভাপতি সরোজগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক মোতাহার হোসেন,সাধারণ সম্পাদক কালোপোল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মজিবর রহমান,মেম্বার আপিল উদ্দিন,সাবেক মেম্বার লাল মোহাম্মদ প্রমুখ।অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন সরোজগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আলমগীর হোসেন। ছয়ঘরিয়া গ্রামের ১৩৯ জন চাকরিজীবীর সেবা সংঘে জমাকৃত ১লাখ ২০ হাজার টাকার ৬টি গরু ৬জন হতদরিদ্র ব্যক্তির হাতে তুলে দেয়া হয়।

ডিঙ্গেদহ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, ডিঙ্গেদহ বাজারে বিভিন্ন সংগঠনের উদ্যোগে ঈদ পুনর্মিলনি ওদোয়া অনুষ্ঠিত হয়। গত২৮জুলাই ডিঙ্গেদহ অভ্যন্তরীণ ছাত্র সংগঠনের (ডিসো) আয়োজনে ইফতার ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। বিকেল ৫টায় ডিঙ্গেদহ বাজারে সংগঠনের সভাপতি ইব্রাহীম কুদ্দুসের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী সারদা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কনসালটেন্ট সার্জারি আব্দুল্লাহ আল মামুন, রাজশাহী কলেজের সহকারী অধ্যাপক আব্দুল মালেক, শঙ্করচন্দ্র ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রহমান, জেলা সার ডিলার অ্যাসোসিয়েশনের সম্পাদক হাজি আকবার আলী মালিথা, ডিঙ্গেদহ বাজারের ব্যবসায়ী হাজি হাবিবুর রহমান। শেষে ডিসোর সদস্য সোহরাওয়ার্দ্দী স্মরণী বিদ্যাপীঠের শিক্ষক জিল্লুর রহমানের রুহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

অপরদিকে গতকাল সকাল ১০টায় সোহরাওয়ার্দ্দী স্মরণী বিদ্যাপীঠের ১৯৯২ সালের এসএসসি পরিক্ষার্থীদের ঈদ পুনর্র্মিলনি অনুষ্ঠান বিদ্যালয় চত্বরে বুধবার অনুষ্ঠিত হয়। বিদ্যাপীঠের প্রধান শিক্ষক শাইনুল হকের সভাপতিত্বে অতিথি ছিলেন বিদ্যাপীঠের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মোজাম্মেল হক, মতিয়ার রহমান, আব্দুল জলিল, সহকারী প্রধান শিক্ষক ফারজানা বেগম, শাহাবুদ্দিন বিশ্বাস খোকন, ইমানুল হক।

হরিণাকুণ্ডু প্রতিনিধি জানিয়েছেন, গতকাল সকাল ১০টায় হরিণাকুণ্ডু সালেহা বেগম মহিল ডিগ্রি কলেজ মিলনায়তনে হরিণাকুণ্ডু উপজেলার বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়সহ খ্যাতিমান শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বর্তমান ও সাবেক শিক্ষক শিক্ষার্থীসহ বরণ্য ব্যক্তিবর্গদের সৌজন্য ঈদ পুনর্মিলনি অনুষ্ঠিত হয়। অধ্যক্ষ মোক্তার আলীর সভাপতিত্বে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের তরুণ শিক্ষক আব্দুস সামাদ ও মিডিয়াকর্মী মাহবুব মুরশেদের যৌথ সঞ্চালনায় শুরুতে পবিত্র কুরআন তেলাওয়াতের পর স্বাগত বক্তব্য রাখেন আহ্বায়ক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মাসির অধ্যাপক ড. এমএ মজিদ। প্রধান অতিথি ছিলেন ভূমি মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব রফিউল আলম। বিশেষ অতিথি উপস্থিত ছিলেন পাবনা মেডিকেল কলেজের গাইনী বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা.হাসানুজ্জামান। উপস্থিত ছিলেন কৃষি অধিদপ্তরের জেলা প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা কৃষিবিদ নজরুল ইসলাম, এজিএম শহিদুজ্জামান শিরু, মেজর ডা. আব্দুল্লাহ মাসুম, সৈয়দা আরিফা আশরাফি, কুষ্টিয়ার সিনিয়র সহকারী জজ শাজাহান আলী, অধ্যক্ষ শরিফুল ইসলাম, অধ্যক্ষ রবজেল হেসেন, অধ্যক্ষ আয়ুব আলী, বাংলাদেশ ডেভোলপমেন্ট ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা হাসান আহম্মেদ নুহ, বাংলাদেশ ব্যংকের ডিজিএম সিরাজুল ইসলাম, ইসলামী ব্যাংক ঝিনাইদহের প্রিন্সিপাল অফিসার নাসির উদ্দিন, নূরুল ইসলাম, আতিকুর রহমান, রিপন আলী, ও গোলাম নবী, অধ্যাপক আশরাফ আলী, সালাহউদ্দিন মাহমুদ।

গাংনী প্রতিনিধি জানিয়েছেন, বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা ও ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্যদিয়ে সারাদেশের মতো মেহেরপুর গাংনীতেও পালিত হয়েছে মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর। সকাল সাড়ে ৮টায় গাংনী কেন্দ্রীয় ঈদগাসহ বিভিন্ন এলাকায় ঈদের জামাত শুরু হয়। পর্যায়ক্রমে সব ঈদগাতে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

এক মাস সিয়াম সাধনার পর প্রতিটি মানুষের ঘরে ঘরে সুখ ও আনন্দের বার্তা বয়ে এনেছে ঈদ। সব ভেদাভেদ ভুলে সব বয়সের মানুষ খুশির সাজে সেজেছেন। আদায় করেছেন ঈদের নামাজ। মোনাজাতে দেশ ও বিশ্বের কল্যাণ, শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করা হয়। তবে খুশির এই দিনেও বেদনাহত ছিলেন মুসল্লিরা। মোনাজাতের মধ্যে বারবারই উঠে আসে ইসরায়েলি হায়েনাদের বর্বোরোচিত হামলার বিষয়। ফিলিস্তিনির নিরীহ মুসলমানদের রক্ষায় আল্লাহর দরবারে সাহায্য চেয়ে চোখের পানি ফেলেন অনেক মুসল্লি। নামাজ শেষে মুসল্লিরা ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করতে একে অপরের সাথে কোলাকুলি করেন। মুহূর্তে গোটা এলাকা সৌহার্দ্য আর সম্প্রীতির মিলনমেলায় পরিণত হয়।

এদিকে আলমডাঙ্গার নাগদহ ইউনিয়নের ঘোলদাড়ি বাজার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্যোগে ঈদ পুনর্মিলনি অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঘোলদাড়ি বাজার মাধ্যমিক বিদ্যালয়মাঠে অনুষ্ঠিত ঈদুল ফিতর পরবর্তী অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী ও শিক্ষকদের কুশল বিনিময় ও কোলাকুলিতে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ মুখোর হয়ে ওঠে। উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ সভাপতি হাজি আব্দুর রাজ্জাক চৌধুরী, প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেন, সহকারী প্রধান শিক্ষক মতিয়ার রহমান, হাফিজুর রহমান, আব্দুল ওহাবসহ প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র ঢাকার বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক রুহুল কুদ্দুস শিপন।

Leave a comment

Your email address will not be published.