চুয়াডাঙ্গা মুক্তিপাড়ার হরিজন সম্প্রদায়ের দু’ভাই ১শ’ লিটার মদসহ আটক : জেলহাজতে প্রেরণ

স্টাফ রিপোর্টার: বহুদিন ধরে বসতবাড়িতে বসেই বাংলামদ বিক্রি করা হরিজন সম্প্রদায়ের দু’সহোদর বিশ্বজিৎ সর্দ্দার ও কিশোর সর্দ্দারকে আটক করে মামলাসহ থানায় দিয়েছে ডিবি পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে চুয়াডাঙ্গা কলেজ রোডের রেজিস্ট্রি অফিসের অদূরবর্তী স্থান থেকে তাদেরকে ১শ’ লিটার বাংলামদসহ আটক করা হয়। পুলিশ বলেছে, ৯টি কন্টেইনারে করে মদ নিয়ে ওরা দু’ভাই চুয়াডাঙ্গা মুক্তিপাড়াস্থ বাড়িতে নিচ্ছিলো। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চুয়াডাঙ্গা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের এসআই নিয়াজ মোর্শেদ, এসআই আশিকুর রহমান, এএসআই রজিবুল ও এএসআই মহিত হাসান সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে অভিযান চালান। ১শ’ লিটার কেরুজ বাংলামদসহ হাতেনাতে ধরা পড়ে বিশ্বজিৎ ও কিশোর। এরা কপ্পুর সর্দ্দারের ছেলে। স্থানীয়রা বলেছে, বহুদিন ধরে এরা নিজেদের বাড়িতে বসে মদ বিক্রি করে আসছিলো। নিজেদের বাড়িতেই বসায় মদের আসর। জুয়ার আসরও বসানো হয়। হরিজন সম্প্রদায়ের অবৈধ মদের দোকানে ও জুয়ার আসরে ইসলাম ধর্মাবলম্বীদেরই ভিড় জমে থাকে। গতকাল দুজনকে ধরে মামলাসহ চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় হস্তÍান্তর করা হয়। পুলিশ এ মামলায় দুজনকে গ্রেফতার করে সংশ্লিষ্ট মামলায় আদালতে সোপর্দ করে। বিজ্ঞ আদালত দুজনকেই জেলহাজতে প্রেরণের আদেশ দেন।
উল্লেখ্য, চুয়াডাঙ্গা মাছের আড়ৎ পট্টিতেও দীর্ঘদিন ধরে হরিজন সম্প্রদায়ের একটি পরিবার দিন-রাত সমানতালে অবৈধভাবে বাংলামদ বিক্রি করে আসছে। ওই বাড়ির গলিতে দাঁড়িয়ে অনেকেরই মদ পান করতে দেখা যায়। এদিকেও পুলিশের বিশেষ নজর দেয়া দরকার বলে মন্তব্য স্থানীয়দের।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *