চুয়াডাঙ্গা বুজরুকগড়গড়ির খোকন হত্যা মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত মালেক গ্রেফতার

বেগমপুর প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গার বুজরুকগড়গড়ির খোকন হত্যা মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি মালেককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল রোববার রাতে বেগমপুর ফাঁড়ি পুলিশ আকন্দবাড়িয়া আবাসন থেকে তাকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত মালেককে আদালতে সোপর্দ করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত আব্দুল মালেক চুয়াডাঙ্গা জেলা শহরের বুজরুকগড়গড়ী পাড়ার মৃত মোন্তাজ মালিতার ছেলে।
মামলাসূত্রে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা পৌর শহরের বুজরুকগড়গড়ি বনানীপাড়ার আলী মদ্দীনের ছেলে তিন সন্তানের জনক সাবুর আলী সাংসারিক অন্যান্য কাজের ফাঁকে গ্রামের ডুমুরতলার মাঠে তাল গাছ কেটে মিষ্টি রস তৈরি করতো। ওই তাল গাছের রস প্রায় চুরি হয়ে যেতো। রস চোর ধরতে ২০০৭ সালের ১১ জুন ভোর পৌনে ৪টার দিকে বাড়ি থেকে বের হয় মালেক। সকাল ৯টার দিকে মিরাজ সর্দারের পাটক্ষেতে খোকনের গলাকাটা লাশ পড়ে থাকতে দেখে পরিবারর লোকজন। এ ঘটনায় খালেকের ভাই নুরবক্স ম-ল ওইদিনই বুজরুকগড়গড়ির মনতাজ মালিথার ছেলে আব্দুল মালেক, আবুল বাসার মাস্টরের ছেরে গুল হোসেন ওরফে লিটন ও মাদরাসাপাড়ার জিনারুলের নামে চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। সে মামলায় চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত দায়রা জজ-১ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক মনজুরুল হক খান ২০০৯ সালের ৫ আগস্ট জিনারুলকে বেকসুর খালাস দিলেও মালেক ও গুল হোসেনের যাবজ্জীবন কারাদ- এবং ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ২ মাসের জেল দেন। বর্তমানে সাজাপ্রাপ্ত আসামি গুল হোসেন উচ্চআদালত থেকে জামিনে আছেন। মামলার প্রধান পলাতক আসামি আব্দুল মালেককে ঘটনার প্রায় ১১ বছর পর বেগমপুর ক্যাম্প পুলিশের ইনচার্জ এসআই রবিউল ইসলাম গ্রেফতার করেন। গ্রেফতারকৃত মালেককে গতকাল বিকেলে আদালতে সোপর্দ করেছে পুলিশ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *