চুয়াডাঙ্গার ডিঙ্গেদহ কওমি মাদরাসা ৭ দিনের জন্য বন্ধ ঘোষণা

 

ডিঙ্গেদহ প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গার ডিঙ্গেদহ বহুমুখী ক্যাডেট স্কিম কওমি মাদরাসা ও লিল্লাহ বোর্ডিংয়ের ৫০ ছাত্র একযোগে মাদরাসা ছেড়ে যাওয়ার পর ৭ দিনের জন্য প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। গতকাল রোববার সকালে মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

জানা যায়, মাদরাসার ছাত্রদের বিভিন্ন সময় গ্রামে গ্রামে কালেকশনের জন্য পাঠানো, কালেকশন ভালো না হলে মাদরাসার খাবার বন্ধ করে দেয়া, অত্যন্ত নিম্নমানের খাবার পরিবেশনসহ শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ ওঠে নায়েবে মুহতামিম আবদুস ছালামের বিরুদ্ধে। তাকে অপসারণের দাবি তোলে শিশু শিক্ষার্থীরা। শনিবারের বৈঠকে মাদরাসা কমিটি শিক্ষকের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা না নেয়ায় একসাথে প্রায় ৫০ শিক্ষার্থী শনিবার সন্ধ্যায় মাদরাসা ছেড়ে যায়। তারা রাতে বোয়ালিয়া জামে মসজিদে রাত কাটায়। গতকাল তাদের অভিভাবকরা এসে তাদেরকে বাড়িতে নিয়ে যায়। গতকাল এ ব্যাপারে মাদরাসা কর্তৃপক্ষ পরিস্থিতি সামাল দিতে ৭ দিনের জন্য মাদরাসা বন্ধ ঘোষণা করে বলে প্রধান শিক্ষক আব্দুস সালাম জানান। এ ব্যাপারে মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি হাজি আনছার আলির নিকট জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা। কাজেই প্রধান শিক্ষক আব্দুস সালামকে বাদ দেয়ার প্রশ্নই ওঠে না।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *