চুয়াডাঙ্গার জাহাপুরে পূর্ণসেবার মধ্যদিয়ে সম্পন্ন হয়েছে একুশে পদকপ্রাপ্ত বাউল খোদাবকশ শাহ’র স্মরণোৎসব

স্টাফ রিপোর্টার: পূর্ণসেবার মধ্যদিয়ে চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার জাহাপুরে গতকাল শুক্রবার বিকেলে সম্পন্ন হয়েছে বাউল ও সাধুদের মিলন মেলা। একুশে পদকপ্রাপ্ত বাউল সাধক মরমী কবি খোদাবকশ শাহ’র দু দিনের স্মরণোৎসবকে ঘিরে জাহাপুরে সাঁইজির আখড়াবাড়িতে গত বৃহস্পতিবার সকাল থেকে এই মিলনমেলা শুরু হয়।
গতকাল শুক্রবার সকাল ৭টায় প্রার্থনা সঙ্গীতের মধ্যদিয়ে দ্বিতীয় ও শেষ দিবসের কর্মসূচি শুরু হয়। এরপর বাল্যসেবার ( দই, খই ও ক্ষীর) গ্রহণের পর শুরু হয় বাউল সঙ্গীতের আসর। সঙ্গীত পরিবেশন করেন খোদাবকশ শাহ’র একমাত্র ছেলে প্রখ্যাত বাউল আব্দুল লতিফ শাহ ও দৌহিত্রী (নাতনি) তানিয়া বিশ্বাস এবং আমান উল্লাহ শাহ, গঞ্জের আলী শাহ , ফকির হারুণ শাহ, মহসীন আলী শাহ ,স্বপন বৈরাগী ও মিলন শাহ।
বিকেলে দূর-দূরান্ত থেকে উৎসবে যোগ দিতে আসা বাউল সাধুদের পূর্ণসেবা (ভাত, মাছ, শাক ও ডাল) দক্ষিণা প্রদানের মধ্যদিয়ে বাউলদের মিলন মেলা সম্পন্ন হয়েছে।
এরআগে বৃহস্পতিবার রাতে মূল অনুষ্ঠানমঞ্চে মরমী কবির জীবনী নিয়ে আলোচনাসভা ও সঙ্গীতানুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। আব্দুল লতিফ শাহ’র সভাপতিত্বে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। সভার শুরুতে জাতীয় সংসদের হুইপ সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার এমপি টেলি কনফারেন্সের মাধ্যমে উপস্থিত ভক্ত, সাধু ও বাউলদের উদ্দেশে বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আনজুমান আরা। জেলার বিভিন্ন প্রান্ত ও জেলার বাইরে থেকে আসা বাউল শিল্পীরা রাতভর বাউল সঙ্গীত পরিবেশন করেন। আব্দুল লতিফ শাহ দাবি করেন, তার বাবার লেখা ৯৫০টি গান নিয়ে সরকারি উদ্যোগে একটি বই প্রকাশ করা হোক।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *