চুয়াডাঙ্গার উজলপুরে মসজিদের ইমামকে কেন্দ্র দু পক্ষের মাঝে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ : মহিলাসহ আহত ১০

 

বেগমপুর প্রতিনিধি: চুয়াডাঙ্গা সদরের উজলপুর গ্রামের উত্তরপাড়া মসজিদের ইমামের স্ত্রীকে নিয়ে কুকথার জের ধরে দু পক্ষের মাঝে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে মহিলাসহ ১০ জন আহত হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে নেয়া হয়েছে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন চিকিৎসা কেন্দ্রে। বিষয়টি নিয়ে গ্রামবাসীর মাঝে বিরাজ করছে চাপা উত্তেজনা।

গ্রামবাসী জানিয়েছে, চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার বেগমপুর উজলপুর গ্রামের উত্তরপাড়া জামে মসজিদের ইমাম আজিজুলের স্ত্রীকে নিয়ে দু সপ্তা আগে কে বা কারা কুকথা রটায়। এ নিয়ে গত শনিবার সালিস বৈঠকও বসে। তাতে কোনো সুরাহা না হলে গ্রামে দুটি পক্ষের মধ্যে বিবাদের সৃষ্টি হয়। এর জের ধরে গতকাল সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে মসজিদের সামনে আসলাম পক্ষ ও নিজাম পক্ষের মাঝে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে উভয় পক্ষ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। রূপ নেয় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের। সংঘর্ষে আসলাম পক্ষের আহত হয় খেদের আলীর ছেলে রবিউল ইসলাম (৫০), আকবর আলীর ছেলে ইউনুচ আলী (৫২), ইউনুচ আলীর ছেলে মনিরুল ইসলাম (২২), আবদার আলীর স্ত্রী নিলুফা বেগম (২৮) ও আমজাদ হোসেনের স্ত্রী রেহেনা বেগম (২৬)। অপরদিকে মুনছুর আলীর ছেলে নিজাম উদ্দিনসহ (৫০) তার পক্ষের আহত হয় ছেলে মিন্টু (৩৫), আশার ছেলে মতিয়ার রহমান (৩০), আজিজুলের দু ছেলে সাইফুল ইসলাম (৩৫) ও নাজমুল (৩২)। আহতদের মধ্যে যাদের অবস্থা গুরুতর তাদের কয়েকজনকে ভর্তি করা হয়েছে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে। বাকিদের নেয়া হয় স্থানীয় চিকিৎসা কেন্দ্রে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন বেগমপুর ক্যাম্প পুলিশের ইনচার্জ এসআই শফিকুল ইসলাম। এ বিষয়ে এসআই শফিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা শিকার করে বলেন, অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে গ্রামে পুলিশ ফোর্স রাখা হয়েছে। গ্রামের কয়েকজন জানিয়েছে, পূর্বশত্রুতার জের ধরে ওই মসজিদের ইমামকে রাখা না রাখা নিয়ে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *