গাংনী সাহারবাটির রবি-মুর্শিদা আপত্তিকর অবস্থায় বেরসিক জনতার হাতে আটক

 

গাংনী প্রতিনিধি: পরকীয়া সম্পর্কের জের ধরে আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়েছে মেহেরপুরর গাংনী উপজেলার সাহারবাটি গ্রামের রফিকুল ইসলাম রবি ও মুশিদা খাতুন। সোমবার রাতে স্থানীয় বেরসিক মানুষ মুর্শিদার ঘর থেকে তাদের আটকের পর পুলিশে সোপর্দ করে। তবে আইনগত ব্যবস্থা না নিয়েই তাদের ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ। রবির ঘরে স্ত্রী ও সন্তান রয়েছে। আর স্বামী পরিত্যক্তা মুর্শিদা থাকেন পিতার বাড়িতে।

স্থানীয় বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, সাহারবাটি গ্রামের মুসা কলিমের ছেলে রফিকুল ইসলাম রবি গ্রামের বেলে মাঠে সেচপাম্প চালাচ্ছেন অনেক দিন থেকেই। মাঠে যাওয়া আসার সুবাদে বেলে মাঠপাড়ার মুয়াজ্জেম হোসেনের মেয়ে স্বামী পরিত্যক্তা মুর্শিদা খাতুনের সাথে তার প্রেমসম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক পর্যায়ে তা অনৈতিক সম্পর্কে মোড় নেয়। এলাকার মানুষের সন্দেহ হলে কয়েকজন রাত জেগে পাহারাও করেন। এক পর্যায়ে গত সোমবার রাত ন’টার দিকে মুর্শিদার ঘরে দুজনকে আপত্তিকর অবস্থায় আটক করে স্থানীয় মানুষ। খবর দেয়া হয় গাংনী থানা পুলিশে। পুলিশের একটি দল সেখানে গিয়ে তাদের আটক করলেও ক্ষমতসীন দলের স্থানীয় কয়েকজনের সুপারিশে তাদের ছেড়ে দেয় পুলিশ।

এলাকার মানুষের অভিযোগ তাদের অনৈতিক কাজে এলাকার মানুষ ক্ষুদ্ধ। কিন্তু আইনগত ব্যবস্থা না নিয়ে পুলিশ তাদের ছেড়ে দেয়ায় এলাকায় ক্ষোভ বিরাজ করছে। হাতেনাতে আটকের পর কীভাবে তাদেরকে ছাড়া হালো সে প্রশ্নের জবাব পায়নি এলাকাবাসী।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *