গাংনীর হিন্দা গ্রামে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

 

গাংনী প্রতিনিধি: পাপড়ি মেলার আগেই নিভে গেল ইদ্রিস আলী-সাথী দম্পত্তির আশার প্রদীপ। যাকে নিয়ে অনেক স্বপ্নের বীজ বুনছিলেন তারা। দেড় বছর বয়সী শিশুর মৃত্যুতে পিতামাতা বাকরুদ্ধ। তাদের বুকফাটা আতর্নাতে গোটা এলাকায় শোকের ছায়া বিরাজ করছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে বাড়ির পাশ্ববর্তী পুকুরের পানিতে ডুবে মারা যায় ওই দম্পত্তির দেড় বছর বয়সী শিশু পুত্র সোলাইমান হোসেন। নিহত সোলাইমান হোসেন মেহেরপুর গাংনী উপজেলার হিন্দা গ্রামের ইদ্রিস আলী-সাথী দম্পতির একমাত্র ছেলে।

শিশুটির পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, প্রতিদিনের ন্যায় দুপুর ২টার দিকে ঘর থেকে বের হয় সোলাইমান। সবেমাত্র হাঁটতে শেখা শিশু সোলাইমান ছিলো চঞ্চল। পাড়ার শিশুদের সাথে তার সখ্যতা ছিলো। তাদের সাথেই রোজ খেলা করতো সোলাইমান। বাড়ির থেকে বের হওয়ার পর অনেকে খোঁজাখুজি করেও তার সন্ধান মিলছিলো না। এতে আসন্ন বিপদের অশনি সঙ্কেত বাজতে থাকে পিতামাতার বুকে। শেষ পর্যন্ত তা-ই হলো। সবাইকে কাঁদিয়ে শিশুপুত্র সোলাইমান চলে গেল না ফেরার দেশে।

পরিবারের সদস্যরা শিশুটির সন্ধানের এক পর্যায়ে বাড়ির পাশ্ববর্তী একটি পুকুরে ভাসতে দেখে। মৃত্যু নিশ্চিত হয় পাড়া প্রতিবেশিরা। কিন্তু পিতামাতার মন তো আর মানে না। তাকে দ্রুত নেয়া হয় গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। সেখানে কর্তৃব্যরত চিকিৎসক এমকে রেজা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ সময় মাসহ স্বজনদের বুকফাটা কান্নায় এলাকার পরিবেশ ভারি হয়ে ওঠে। সন্ধ্যায় নিজ গ্রামে শিশুটির দাফন সম্পন্ন হয়।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *