গাংনীর শালদহ গ্রামে রামদার কোপে তিন জন আহত ॥ হামলাকারীকেও মারধর

গাংনী প্রতিনিধি: মেহেরপুর গাংনী উপজেলার শালদহ গ্রামে অতর্কিত হামলায় তিনজন আহত হয়েছেন। গতরাত সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হচ্ছে- শালদহ গ্রামের মোজাহার ম-লের ছেলে ময়নাল হোসেন (৩৮), ফজলুল হকের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (২৮), অলি চাঁদের ছেলে শরিফুল ইসরাম (৩৬) ও হামলাকারী আনন্দবাস গ্রামের তাইজুল ইসলাম (৪০)।
আহতসূত্রে জানা গেছে, শনিবার রাতে তাইজেল হোসেনের ভাগনি প্রেমের জেরে শালদহ গ্রামের এক যুবকের হাত ধরে অজানার উদ্দেশে পাড়ি জমায়। এ নিয়ে তাইজেল হোসেন আনন্দবাস গ্রামের কয়েকজনের ওপর ক্ষিপ্ত হয়। তাদের ওপর হামলার উদ্দেশে গতরাতে বাড়ি থেকে ধারালো রামদা নিয়ে শালদহ গ্রামের দিকে রওনা দেন। শালদহ গ্রামের বিলপাড়ার আসাদুলের দোকানের সামনের মাচালে বসে সময় কাটাচ্ছিলেন কয়েকজন। তারা তাইজেলকে রামদা হাতে করে যেতে দেখে থামানোর চেষ্টা করেন। এ নিয়ে বাগবিত-া শুরু হয়। এক পর্যায়ে রামদা দিয়ে এলোপাথাড়ি কোপাতে থাকে তাইজেল। এতে ময়নাল, জাহাঙ্গীর ও শরিফুল গুরুতর আহত হন। স্থানীয় লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে তাইজেলকে মারধর করে। পরে তাইজেলসহ আহত ৪ জনকে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। কিন্তু চিকিৎসকরা প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ৪ জনকেই কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন। এদের মধ্যে দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।
গাংনী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিলো। হাসপাতালে রোগীদের কাছ থেকে ঘটনাটি শোনা হয়েছে। তবে এখনো পর্যন্ত কোনো পক্ষ মামলা দেয়নি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *