খোলাবাজারে ৫২ টাকা কেজি দরে দর্শনা কেরু এন্ড কোম্পানীর চিনি চোখের পলকে শেষ

 

স্টাফ রিপোর্টার: চুয়াডাঙ্গার দর্শনা কেরু এন্ড কোম্পানী লিমিটেডের চিনি খোলাবাজারে বিক্রি সাধারণ ক্রেতাদের মাঝে ব্যাপক সাড়া পড়েছে। গতকাল বুধবার ট্রাকভর্তি চিনি জেলা প্রশাসক কার্যালয় চত্বরে চোখের পলকে শেষ হয়ে গিয়েছে। অনেক ক্রেতা চিনি না পেয়ে বেশি দামে বাজার থেকে চিনি সংগ্রহ করতে বাধ্য হয়েছে।

গতকাল বুধবার দুপুরে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে ট্রাকভর্তি চিনি বিক্রি হচ্ছে খবর পেয়ে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী, সাংবাদিকবৃন্দ ও সাধারণ মানুষরা চিনি কিনতে শুরু করে। এক পর্যায়ে চোখের পলকে ট্রাকে থাকা সমস্ত বিক্রি হয়ে যায়।

দর্শনা কেরুজ চিনিকলের কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম ও অন্যান্য কর্মচারীরা চিনি বিক্রিতে ব্যস্ত সময় কাটায়। তবে কোন ক্রেতা ১ কেজি ওজনের ৪টির বেশি প্যাকেট কিনতে পারেনি। প্রতি কেজি চিনি বিক্রি হয়েছে ৫২ টাকা দরে। একই চিনি চুয়াডাঙ্গা বাজারের বিভিন্ন দোকানে ৫৫ টাকা কেজি দরে অনেককে কিনতে দেখা গেছে। এছাড়া বাজারগুলোতে ৫০ কেজির বস্তার চিনি ৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। যে কারণে ৫২ টাকার চিনির প্রতি ক্রেতাদের ভিড় দেখা গেছে। তবে ক্রেতাদের অভিযোগ কেরুর কোম্পানীর গুটিকয়েক ডিলার চিনি উত্তোলন না করায় এ অঞ্চলের মানুষ কেরুর চিনি খাওয়া থেকে বঞ্চিত হতে হয়। এছাড়া, কেরুর উৎপাদিত পণ্য ভিনেগারের চাহিদা রয়েছে ক্রেতাদের মাঝে। সে কারণে ভিনেগারসহ কেরুর উৎপাদিত সকল পণ্য খোলাবাজারে বিক্রি হলে এ অঞ্চলের মানুষের কেরুর পণ্যের প্রতি আরো বেশি আগ্রহ সৃষ্টি হবে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করেন। এ বিষয়টির প্রতি  কেরুর ব্যবস্থাপনা পরিচালক দৃষ্টি দেবেন বলে সংশ্লিষ্টরা আশা করছেন।

প্রসঙ্গত: পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে দর্শনা কেরুজ চিনিকলের এ কর্মসূচি চলবে বলে জানা গেছে।

 

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *