ক্ষমা চেয়ে পার পেলেন মেহেরপুর সদর থানার ওসি

 

মেহেরপুর অফিস: মেহেরপুর সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ আতিয়ার রহমান তার বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার ঘটনায় ক্ষমা চেয়ে পার পেলেন। গতকাল সোমবার দুপুরে মেহেরপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মতিউর রহমানের আদালতে তিনি হাজির হয়ে ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ আতিয়ার রহমানের আইনজীবী একেএম শফিকুল আলম জানান, ওসি আদালতে হাজির হয়ে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। এর প্রেক্ষিতে বিজ্ঞ বিচারক তার অপরাধের বিষয়ে সতর্ক করে ক্ষমা করেন। ওসি শেখ আতিয়ার রহমান জানান, আদালতের আদেশ মতো গত ৭ জুলাই ওসি (তদন্ত) তরিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ১৬১ ধারা ও তৎসহ ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি দমন আইনের ৭(৫) (২) এ থানায় মামলা রুজু করা হয়েছে। বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে মামলার নথিপত্র দুদক কুষ্টিয়াসহ বিভিন্ন দপ্তরে প্রেরণ করা হয়। কিন্তু সঙ্গত কারণে আদালতের অবহিত করতে দেরি হয়। দেরির বিষয়টি বিজ্ঞ আদালতের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করা হলে আদালত তা ক্ষমা করেছেন।

উল্লেখ্য, ঘুষ গ্রহণের অভিযোগে সদর থানা ওসি (তদন্ত) তরিকুল ইসলামের নামে থানায় মামলা দায়েরের আদেশ দিয়েছিলেন সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মতিউর রহমান। আদালতের ওই আদেশ অমান্য করায় গত ১ জুলাই সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মতিউর রহমান স্বপ্রাণোদিত হয়ে আদালত অবমাননার মামলাটি দায়ের করেন।

সম্প্রতি এক আসামির জবানবন্দিতে ওসি (তদন্ত) তরিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ ওঠে। আদালত বিষয়টি আমলে নিয়ে তরিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে সদর থানায় মামলা দায়েরের আদেশ দেন। একইসাথে দুনীতি দমন কমিশনকে (দুদক) বিষয়টি তদন্তের আদেশ দেন।

 

Leave a comment

Your email address will not be published.