কেন্দ্রীয় নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মহেশপুর বিএনপির সভা আহ্বান করায়নেতাকর্মীদের সভা বর্জন

 

মহেশপুর প্রতিনিধি: কেন্দ্রীয় নিষেধাজ্ঞা অমান্যকরে গতকাল মঙ্গলবার সকালে মহেশপুর উপজেলা সভাপতি শহিদুল ইসলাম মাস্টার তার নিজের বাসায় সভা আহ্বান করায় তৃণমূল নেতাকর্মীরা সভা বর্জন করে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর উপজেলা বিএনপির আভ্যন্তরীণ কোন্দল চরমে রূপ নেয়ায় শেষ পর্যন্ত কেন্দ্রীয় যুগ্মমহাসচিব (দপ্তর) অ্যাড. রুহুল কবির রিজভি স্বাক্ষরিত পত্রের মাধ্যমে চলমান দ্বন্দ্ব নিরসন না হওয়া পর্যন্ত সকল প্রকার সাংগঠনিক কার্যক্রমের প্রতি নিষেধাজ্ঞা জারি করে এবং অবিলম্বে চলমান দ্বন্দ্ব নিরসনের জন্য যুগ্মমহাসচিব মিজানুর রহমান মিনু এবং সাংগঠনিক সম্পাদক (খুলনা বিভাগ) মশিউর রহমানের ওপর দায়িত্ব দেয়। এমতবস্তায় কেন্দ্রীয় নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বহিষ্কৃত সাধারণ সম্পাদকের মাধ্যমে শহিদুল ইসলাম মাস্টার সভা আহ্বান করলে নেতা-কর্মীরা আরও ফুঁসে ওঠেন।

জানা গেছে, মহিউদ্দিন স্বাক্ষরিত পত্রে ইফতার, সাংগঠনিক আলোচনা ও বিবিধ আলোচ্যসূচির ওপর সভা আহ্বান করেন। কিন্তু সচেতন নেতাকর্মীরা চলমান দ্বন্দ্ব নিরসন না হওয়া পর্যন্ত কেউই মাঠে নামতে রাজি নন। ফলে কোরাম পূরণ না হওয়ায় সভা পণ্ড হয়ে যায়। ২৪ জন সভাপতি সম্পাদকের মধ্যে ১৯ জনই উপস্থিত হননি।সেইসাথে ভাইস চেয়ারম্যান, মেয়র ও আব্দুল লতিফসহ অনেকেই উপস্থিত হননি। শারীরিক অসুস্থতার কারণে দীর্ঘদিন শহিদুল মাস্টার নেতাকর্মীদের খোঁজখবর না নেয়ায় ও ২০১৩ সালের সরকার পতন আন্দোলনে মাস্টারের ভূমিকা না থাকায় এবং হামলা মামলায় ক্ষতিগ্রস্ত নেতাকর্মীদের পাশে না থাকায় মাঠের নেতাকর্মীরা প্রকাশ্যে উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মো. মমিনুর রহমানের পক্ষে অবস্থান নেন। ফলে মহেশপুরে বিএনপি এখন দুটি পক্ষে অবস্থান করছে। একটি শহিদুল মাস্টার অন্যটি ইঞ্জিনিয়ার মো. মমিনুর রহমানের পক্ষ।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *