কুষ্টিয়ায় দুই ভাইয়ের সমর্থকদের সংঘর্ষ : আহত ৫

 

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ার মৃত্তিকাপাড়ায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে স্থানীয় প্রভাবশালী দুই ভাইয়ের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সংঘর্ষে অন্তত ৫ জন আহত হয়েছেন। এর মধ্যে গুরুত্বর আহত অবস্থায় আজাদ আলী (৩৫) নামের এক ব্যক্তিকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে সদর উপজেলার উজানগ্রাম ইউনিয়নের মৃত্তিকাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে। বর্তমানে ওই এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মৃত্তিকাপাড়ায় অনেক আগে থেকেই আধিপত্য নিয়ে দুই ভাই সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হামিদ মোল্লা ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার জাপান মোল্লার সমর্থকদের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলে আসছিলো। গতকাল রাতে হামিদ মোল্লা পক্ষের সমর্থক স্থানীয় ইউপি সদস্য রুবেল এলাকায় গুজব ছড়ায় যে জাপান মোল্লার সমর্থকরা তাদের ওপর হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে। তারই জের ধরে গতকাল মঙ্গলবার সকালে মৃত্তিকাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে দুইপক্ষের সমর্থকদের মধ্যে বাগবিতণ্ডা বেধে যায়। এক পর্যায়ে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। এ সময় হামিদ মোল্লা পক্ষের সমর্থক রুবেল মেম্বার ও জাপান মোল্লা পক্ষের সমর্থক মহসিন মাস্টারের নেতৃত্বে উভয়পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে দুপক্ষের অন্তত ৫ জন আহত হন। এদের মধ্যে জাপান মোল্লার সমর্থক আজাদ আলী গুরুত্বর আহত হন। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে গুরুত্বর আহত অবস্থায় কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। বাকিরা স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নিয়েছে।

হামিদ মোল্লার সমর্থক স্থানীয় ইউপি মেম্বার রুবেল ইসলাম জানান, জাপান মোল্লার সমর্থকরা পূর্ব বাংলা কমিউনিস্টপার্টির সক্রিয় সদস্য। এদের মধ্যে লিয়াকত ও জিয়া এলাকায় ত্রাস সৃষ্টি করেছে। তাদের ভয়ে এলাকার কেউ মুখ খুলতে সাহস পায় না। এখন উল্টো আমাদের ওপর দোষ চাপাচ্ছে। জাপান মোল্লার সমর্থক মহসিন মাষ্টার জানান, গতকাল রাতে রুবেলের নেতৃত্বে এলাকায় গুজব ছড়িয়ে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটিয়েছে। এটা পূর্বপরিকল্পিত।

ইবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শরীফুল ইসলাম জানান, সকালে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষ হয়েছে। একজন গুরুত্বর আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *