কুষ্টিয়ার ইবিতে ক্রিড়া প্রতিমন্ত্রী শ্রী বীরেন শিকদার বলেছেন

 

খালেদার আগুন সন্ত্রাসের পরেও দেশের অর্থনীতি থেমে নেই

ইবি প্রতিনিধি: যুব ও ক্রিড়া বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী শ্রী বীরেন শিকদার বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়ার আগুন সন্ত্রাসের পরেও বাংলাদেশের অর্থনীতি থেমে নেই। দেশের অর্থনীতি এখন ক্রমেই উন্নতির দিকে যাচ্ছে। গত তিন মাসে বেগম খালেদা জিয়া আগুন সন্ত্রাস না চালালে আমরা অর্থনৈতিক উন্নয়নের আরও স্বাদ পেতাম। শনিবার কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্ত:বিশ্ববিদ্যালয় ফুটবল প্রতিযোগীতার সমাপনী দিনে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মিলনায়তনে প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি রেজিষ্ট্রার নওয়াব আলী খান ও শারীরিক শিক্ষা বিভাগের ক্রিড়া প্রশিক্ষক মাবিলা রহমানের উপস্থাপনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঝিনাইদহ-১ আসনের সাংসদ ও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল হাই, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আবদুল হাকিম সরকার।

ক্রিড়া প্রতিমন্ত্রী তার ভাষণে বলেন, ‘বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বেড়েছে। শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার আগে অথনৈতিক প্রবৃদ্ধি সাড়ে তিন থাকলেও বর্তমান সরকারের আমলে তা বৃদ্ধি পেয়ে ৬ দশমিক ৭-এ পৌছেছে। মাথাপিছু আয় বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩শত ১৪ ডলার। আশা করা যায় ২০২১ সালে বিদ্যুতের বর্তমান উৎপাদন ১২হাজার কিলোওয়াট থেকে বৃদ্ধি পেয়ে ২০ হাজার কিলোওয়াটে উন্নীত হবে। শিক্ষা ও কৃষিখাতেও ব্যাপক উন্নতি হয়েছে বলে তিনি জানান। শ্রী বীরেন শিকদার বলেন, বাংলাদেশ এখন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। আমরা ইতিমধ্যে শ্রীলঙ্কায় চাল রপ্তানী কর চাল রপ্তানীকারক দেশে নাম লিখিয়েছি। দেশে এখন কেউ আর গরিব নেই। শেখ হাসিনা সরকারের সফল নের্তৃত্বে বাংলাদেশ এখন একটি মধ্যম আয়ের দেশে পরিনত হয়েছে বলে জানান এ প্রতিমন্ত্রী। কেন্দ্রীয় মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এ আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য ও আন্ত:বিদ্যালয় ক্রিড়া কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মো. শাহিনুর রহমান।

বর্তমান সরকারের আমলে ক্রিড়া বিভাগের সাফল্য তুলে ধরে ক্রিড়া প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘শেখ হাসিনা সরকার ক্ষমতায় আসলে ক্রিড়া বিভাগে আমূল উন্নতি সাধিত হয়। ১৯৯৬ সালে আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় থাকাকালীন বাংলাদেশ ওয়ানডে (১৯৯৮) ও টেস্ট (১৯৯৯) ক্রিকেটের মর্যাদা পায়। বিশ্বকাপ ক্রিকেটে বাংলাদেশ কোয়ার্টার ফাইনালে উঠেছে। সম্প্রতি বাংলাদেশ পাকিস্তানকে হোয়াটওয়াশ করেছে। এসবই বর্তমান সরকারের কৃতিত্ব বলে তিনি জানান। তিনি আরও বলেন, ‘প্রত্যক্ষ হোক বা পরোক্ষভাবে হোক বিএনপিও বর্তমান সরকারের উন্নতি স্বীকার করে নিয়েছে। এসময় তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি স্টেডিয়াম, একটি স্ইুমিংপুল ও বিশ্ববিদ্যালয় জিমনেসিয়ামকে আধুনিক করার প্রতিশ্রতি দেন।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, আলোচনা সভার আগে ক্রিড়া প্রতিমন্ত্রী শ্রী বীরেন শিকদার বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মাঠে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বনাম জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাইনাল খেলা উপভোগ করেন। ফাইনাল খেলায় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়কে ১-০ গোলে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হবার গৌরব অর্জন করে। খেলা শেষে প্রধান অতিথি বিজয়ী দল ও রানার্স আপ দলের খেলোয়ারদের হাতে পুরষ্কার তুলে দেন।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *