কালীগঞ্জে পাওনা টাকা চাওয়ার মন্দিরের পুরোহিতকে লাঞ্ছিত করে হত্যার হুমকি অভিযোগে একজন গ্রেফতার

 

কালীগঞ্জ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহ কালীগঞ্জে সেবানন্দ বাবাজি (৪৮) নামে মন্দিরের এক পুরোহিতকে হেঁসোর ভয় দেখিয়ে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করা হয়েছে। পাওনা টাকা চাওয়া নিয়ে গতকাল রোববার সকালে উপজেলার সূবর্ণসারা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত মিজানুর রহমান নামে একজনকে আটক ও নিরাপত্তার জন্য পুরোহিতকে পুলিশ হেফাজতে রেখেছে। সূবর্ণসারা গ্রামের চিন্তারাম বিশ্বাসের ছেলে পুরোহিত সেবানন্দ রাধা গোপিনাথ মন্দিরেই বসবাস করেন।

পুলিশ, এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগী পুরোহিত সেবানন্দ জানান, তিনিসহ সূবর্ণসারা গ্রামের মিজানুর, খালেক, মশিয়ার, অশোক কুমার ও মশিয়ার নামে ৬ জন মিলে ৩ বছর আগের ৪ লাখ ২০ হাজার টাকা ব্যয়ে একটি পানির মোটর বসিয়েছিলেন। পরবর্তীতে মোটরের ব্যবসা নিয়ে মনোমালিন্য হওয়ায় সেবানন্দ তার ভাগের ৭০ হাজার টাকার পার্টনারশিপ ছেড়ে দেয়। তখন প্রথম দফায় পার্টনার মিজানুর তাকে ৩৬ হাজার টাকা দেন। তিনি জানান, তার নিজের চিকিৎসার জন্য জরুরিভাবে টাকার প্রয়োজন হয়ে পড়ে। এজন্য বাকি ৩৪ হাজার টাকা চেয়ে গত শনিবার মিজানুরকে না পেয়ে তার ভইয়ের নিকট টাকার তাগাদা দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে পরদিন রোববার সকালে মিজানুর একাই হেঁসো হাতে নিয়ে মন্দিরে যান। সেখানে পুরোহিত সেবানন্দকে হুমকি ও ভয়ভীতি দেখাতে থাকেন। একপর্যায়ে সেবানন্দ সেখান থেকে পালিয়ে অনত্র্য আশ্রয় নেন। এ ঘটনার খবর পেয়েই সূবর্ণসারা ফাঁড়ি পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। পুলিশ এ সময় অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত মিজানুরকে আটক করেছে। বর্তমানে পুরোহিতকে উদ্ধার করে তার নিরাপত্তার জন্য থানা হেফাজতে রাখা হয়েছে।

কালীগঞ্জ থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, পার্টনারে পানির মোটরের ব্যবসার পাওনা টাকা নিয়ে এ গোলযোগ বাধে। মন্দিরের পাশেই মিজানুর কাঁচি নিয়ে তাকে শাসিয়েছে। পুরোহিত মিজানুরের বিরুদ্ধে মামলা করবেন না বলে পুলিশকে জানিয়েছেন।

Leave a comment

Your email address will not be published.