কারাফটকেতাহেরপুত্র বিপ্লবের নাটকীয় বিয়ে নিয়ে তোলপাড়

 

 

স্টাফ রিপোর্টার: লক্ষ্মীপুরের আলোচিত জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র এম এতাহেরের ছেলে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি আফতাব উদ্দিন বিপ্লবের (৩৯)কারাফটকে নাটকীয় বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে।রাষ্ট্রপতি কর্তৃকক্ষমাপ্রাপ্ত সাজা বরণকারী আসামির এই বিয়ে নিয়ে এলাকায় আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে।বর করাগারে থাকলেও কনে তার শ্বশুরবাড়িতে অবস্থান করছেন বলে জানা গেছে। এধরনের বিয়ে এই প্রথম বলে জানিয়েছেন কারা কর্তৃপক্ষ।লক্ষ্মীপুরপৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের লামচরী এলাকার অ্যাডভোকেট আবুল খায়েরের মেয়ে সানজিদাআক্তার পিউর বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়। সানজিদা আক্তার পিউ লক্ষ্মীপুর সরকারিকলেজের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী।ক্ষমাপ্রাপ্ত ফাঁসির আসামিরকারাগার থেকেই ১০ লাখ টাকা দেনমোহর এবং ৩০ ভরি স্বর্ণ দিয়ে মোবাইল ফোনেবিয়ে করেন। এ সময় কয়েদির পোশাকের বদলে বিপ্লব পাঞ্জাবি পড়ে বর সেজেকাবিননামায় স্বাক্ষর করেন বলে সেখানে উপস্থিত একাধিক ব্যক্তি জানিয়েছেন।

কারাসূত্র জানায়, বিয়ের আগে কারাগারের অভ্যন্তরে অপর ফটকে কয়েকজন ঘনিষ্ঠআত্মীয়স্বজন আসামি বিপ্লবের গায়ে হলুদ ও মেহেদী লাগিয়ে দেন। বিয়ের আগমুহূর্তে তাহের সমর্থক একদল কর্মী মোটরসাইকেল নিয়ে কারাগারের সামনে অবস্থাননেন।কারারক্ষক জয়নাল আবেদীন জানান, শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়জেলা প্রশাসকের অনুমতি থাকায় বিপ্লবকে কারাফটকে হাজির করা হয়। সেখানে তারপরিবারের লোকজন কাবিননামায় স্বাক্ষরকাজ সম্পন্ন করার পর পুনরায় তাকেকারাগারের অভ্যন্তরে নিয়ে যাওয়া হয়।মোবাইলফোনে বিয়ের সময় উপস্থিতছিলেন বরের বাবা পৌরমেয়র এম এ তাহের, ভাই সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানসালাহ উদ্দিন টিপু, কনের মাসহ উভয় পক্ষের প্রায় অর্ধশতাধিক মেহমান।বিয়েহওয়ার পর রাত সাড়ে ১০টা থেকে সাড়ে ১১টার মধ্যে একটি কালো মাইক্রোবাসে করেকনেকে কারাফটকে নেয়া হয় বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়। সেখানেই বর-কনেরসাক্ষাৎ হয়।

উল্লেখ্য, বিএনপি নেতা নুরুল ইসলাম হত্যাকাণ্ডের মামলায়আদালতের রায়ে মৃত্যুদণ্ড হয়েছিল বিপ্লবের। তবে আওয়ামী লীগের গত মেয়াদেরাষ্ট্রপতি তার মৃত্যুদণ্ড মওকুফ করার পর এখন যাবজ্জীবন সাজা খাটছেন বিপ্লব।এব্যাপারে জেলা প্রশাসক একেএম টিপু সুলতানের মোবাইলফোনে সাংবাদিকরা বেশকয়েকবার ফোন করলেও তিনি রিসিভ করেননি। বাসায় গিয়ে তার সাথে দেখা করতেচাইলে ফটক থেকে বলা হয়, ‘স্যার ব্যস্ত আছেন, এখন কারো সঙ্গে দেখা করবেননা।’

Leave a comment

Your email address will not be published.