ইকোসকের সদস্য

স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশ জাতিসংঘের অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদের (ইকোসক) সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে। ১৮৭ ভোটের মধ্যে ১৮১ ভোট পেয়ে বাংলাদেশ এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ভোটপ্রাপ্ত দেশ হিসেবে আগামী তিন বছরের (২০১৪-২০১৬) জন্য নির্বাচিত হয়েছে। নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সদর দপ্তরে স্থানীয় সময় গত বুধবার এ ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ মিশনের প্রথম সচিব (প্রেস) মামুন-অর-রশিদ এ তথ্য জানান।

নির্বাচনে বিজয়ের পর তাত্ক্ষণিক এক প্রতিক্রিয়ায় বাংলাদেশ মিশনের স্থায়ী প্রতিনিধি ড.এ.কে আব্দুল মোমেন ইকোসকের সদস্য নির্বাচনে জাতিসংঘ সদস্য রাষ্ট্রসমূহের এই বিপুল সমর্থনে বাংলাদেশে বর্তমান শেখ হাসিনা সরকারের অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নের স্বীকৃতি বলে দাবি করেন। তিনি জাতিসংঘের সকল সদস্য রাষ্ট্রকে বাংলাদেশ মিশনের পক্ষ থেকে এ স্বীকৃতির জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানান। ইকোসকের এবারের নির্বাচনে এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চল থেকে চীন এবং সাউথ কোরিয়া পুনঃনির্বাচিত হয়েছে। বিদায়ী সদস্য পাকিস্তান এবং কাতারের স্থলাভিষিক্ত হয়েছে বাংলাদেশ ও কাজাকস্তান। নির্বাচিত ১৮টি সদস্য রাষ্ট্রের মধ্যে ভোট প্রাপ্তি বিবেচনায় বাংলাদেশের অবস্থান তৃতীয়। স্থায়ী প্রতিনিধিদের অভিনন্দনের প্রতিক্রিয়ায় বাংলাদেশ মিশনের স্থায়ী প্রতিনিধি ড.এ.কে আব্দুল মোমেন বলেন, বৈশ্বিক অর্থনৈতিক মন্দার মধ্যে বর্তমান সরকারের আর্থিক ব্যবস্থাপনা দক্ষতার কারণে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। সরকারের সামাজিক নিরাপত্তা বেস্টনী কর্মসূচি সমাজের অবহেলিত, সুবিধা বঞ্চিত মানুষের জীবনযাত্রার বৈপ্লবিক পরিবর্তন সূচনা করেছে। অর্থনৈতিক ও সামাজিক ক্ষেত্রে শেখ হাসিনা প্রশাসনের বিপ্লবী কর্মকাণ্ডের স্বীকৃতি মিলেছে ইকোসকের সদস্য নির্বাচনে জাতিসংঘের সদস্য রাষ্ট্রসমূহের বিপুল ভোট প্রাপ্তির মাধ্যমে। অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদের মতো জাতিসংঘের এ গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রমে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের অগ্রগতির অভিজ্ঞতা বিশেষ সহায়ক ভূমিকা পালন করবে আশা করছি।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *